NarayanganjToday

শিরোনাম

মীরুর বিরুদ্ধে মানববন্ধন শেষে ফেরার পথে দুজনকে কুপিয়ে আহত


মীরুর বিরুদ্ধে মানববন্ধন শেষে ফেরার পথে দুজনকে কুপিয়ে আহত

সন্ত্রাসী মীরু ও তার বাহিনীর এলোপাতাড়ি কোপে তানভির ও নাঈম নামের দুজন গুরুতর আহত হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। মঙ্গলবার (১৯ নভেম্বর) সন্ধ্যার দিকে চাষাড়া রেলস্টেশনে এ ঘটনা ঘটে।

আহতদের গুরুতর অবস্থায় উদ্ধার করে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজে ভর্তি করা হয়েছে। তাদের মধ্যে তানভিরের কপালে কোপ লেগেছে। দুজনের অবস্থাই গুরুতর বলে দাবি করেন চাঁদ শিকদার সেলিম।

এর আগে সন্ত্রাসী মীর হোসেন মীরু ও তার সহযোগীদের গ্রেফতার এবং তাদের আস্তানা উচ্ছেদের দাবিতে নারায়ণগঞ্জ প্রেসক্লাবের সামনে মানববন্ধন করেছে কুতুবপুরের ভুক্তভোগি। মীরু ফতুল্লা মডেল থানা পুলিশের তালিকাভূক্ত দশ নম্বর সন্ত্রাসী। পাগলা কুতুবপুরের সর্বস্তরের জনগণের ব্যানারে আয়োজিত এই মানববন্ধন থেকে মীর হোসেন মীরু ও তার বাহিনীর নির্মম নির্যাতনের বর্ণনা করেন ভুক্তভোগিরা।

চাঁদ শিকদার সেলিম বলেন, মীরুর ভাগিনা শাকিল তার সহযোগী গেন্দু ও ভিপি রাজিবসহ ১৫/২০ ধারালো ছুরি, লাঠি নিয়ে আমাদের উপর হামলা চালায়। এসময় তানভিরের কপালে কোপ দিলে সে মাটিতে লুটে পড়ে। এরপর নাঈমকে এলোপাতারি মারধর করে মৃত্যু নিশ্চিত ভেবে তারা চলে যায়। পরে আশপাশের লোকজনের সহযোগিতায় তাদের দুজনকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় উদ্ধার করে ঢাকা মেডিক্যালে পাঠানো হয়েছে।

তিনি বলেন, মানববন্ধন শেষে ট্রেনে করে পাগলা ফেরার জন্য আমরা চাষাড়া রেলষ্টেশনে আসি। তখন আগের থেকে ওৎ পেতে থাকা মীরুর সন্ত্রাসী বাহিনী আমাদের উপর ওই হামলা চালায়। সন্ত্রাসীদের মধ্যে চারজনকে চিনতে পেরেছি। তাদের একজনকে মীরুর ভাগিনা শাকিলের মতো লেগেছে। সেই অন্যদের নেতৃত্ব দিচ্ছিলো।

তবে, মীর হোসেন মীরু এ অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, চাঁদ সেলিমের লোকজন নিজেরাই মারামারি করে ঘটনাটি ভিন্ন দিকে নিতে আমার ও আমার ভাগিনা শাকিলের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা করার চেষ্টা করছে। আমি পঙ্গু দুটি পা অচল ঘর থেকে বের হতে পারিনা। আমার ভাগিনা কলকাতা জন্ডিসের চিকিৎসা করতে দুদিন আগে গিয়েছে। আমি ন্যায় বিচারের জন্য এ ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত চাই।

ফতুল্লা মডেল থানা পুলিশের অফিসার-ইন-চার্জ (ওসি) আসলাম হোসেন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। তবে তিনি বলেন, মীরু বাহিনীর লোকজন হামলা করেছে কিনা তা এখনও নিশ্চিত নই। তবে, দুজনকে কোপানো হয়েছে। তারা ঢাকা মেডিক্যাল কলেজে রয়েছে।

ওসি আরও বলেন, আমরা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। এখন পাগলা বউবাজার এলাকাতেও এসেছে। তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে। যারা জড়িত রয়েছে তাদেরকে আইনের আওতায় আনা হবে।

১৯ নভেম্বর, ২০১৯/এসপি/এনটি

উপরে