NarayanganjToday

শিরোনাম

সাবেক ডিসি রাব্বি মিয়া নদী নয়, ভালোবাসতেন টাকা!


সাবেক ডিসি রাব্বি মিয়া নদী নয়, ভালোবাসতেন টাকা!

নারায়ণগঞ্জের সাবেক ডিসি রাব্বি মিয়া নদীকে ভালোবাসতে পারেনি। তিনি ভালোবেসেছিলেন ‘টাকা’, এমনই বলেছেন জাতীয় নদী রক্ষা কমিশনের চেয়ারম্যান মজিবুর রহমান হাওলাদার। এ নিয়ে তিনি চরম ক্ষোভ প্রকাশ করেন।

৯ ডিসেম্বর দুপুরের দিকে মেঘনা নদীর মুন্সিগঞ্জের গজারিয়া ও নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ উপজেলার বিভিন্ন স্থান পরিদর্শন শেষে নারায়ণগঞ্জ জেলার বর্তমান ডিসি মো. জসিম উদ্দীনের সাথে মুঠোফোনে কথা বলেন তিনি। এসময় গণমাধ্যমকর্মীরাও সামনে উপস্থিত ছিলেন।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন জাতীয় নদী রক্ষা কমিশনের সচিব আমিনুল ইসলাম, সদস্য মোহাম্মদ আলাউদ্দিন ও স্থানীয় প্রশাসনের কর্মকর্তারা।

কমিশনের চেয়ারম্যান মজিবুর রহমান হাওলাদার, নদী দখলের জন্য সাবেক ডিসি রাব্বি মিয়াকে দায়ী করেছেন। তিনি বর্তমান ডিসিকে মুঠোফোনে বলেন,‘তোমার আগের জেলা প্রশাসক নদীকে ভালোবাসতে পারেনি। সে ভালোবেসেছিল টাকাকে। কোনো সভ্য জাতি এভাবে নদী দখল করতে পারে না।

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ উপজেলার মেঘনা নদী ও আশপাশের শাখা নদী দখলের পেছনে নারায়ণগঞ্জ ও মুন্সিগঞ্জের জেলা প্রশাসনসহ সরকারি চার সংস্থাকে সরাসরি দায়ী করেছে জাতীয় নদী রক্ষা কমিশনের চেয়ারম্যান মজিবুর রহমান হাওলাদার।

তিনি বলেন, আমি স্বচক্ষে যা দেখলাম, তা খুবই ভয়ংকর। এ দুই উপজেলার মেঘনা নদী ও আশপাশের শাখা নদীগুলোর তীরে গড়ে ওঠা বিভিন্ন শিল্পকারখানা কর্তৃপক্ষ নদ-নদী দখলের উৎসবে মেতে উঠেছে। এ এলাকায় অনেকটা প্রতিযোগিতা করে নদ-নদী দখল চলছে।

কমিশন চেয়ারম্যান বলেন, পরিবেশ অধিদপ্তরের বিভিন্ন অনিয়মের অভিযোগে মাঝেমধ্যে বিভিন্ন শিল্পকারখানাকে জরিমানা করে। কিন্তু দায়ী কারখানার মালিকদের বিরুদ্ধে ফৌজদারি মামলা হয় না। তাদের জেলে যেতে হয় না। দখলবাজরা বর্তমানে এতই প্রভাবশালী যে তাদের উচ্ছেদ করতে গেলে জেলা প্রশাসকদের তারা নানাভাবে চাপ দেয়। যতই চাপ আসুক, অবশ্যই নদ-নদী দখলদারদের উচ্ছেদ করতে হবে। স্থানীয় প্রশাসন তাদের দায় এড়াতে পারবে না।

নদী রক্ষা কমিশনের চেয়ারম্যান আরও বলেন, দখলদাররা সবাই হৃদয়হীন লোক। এভাবে নদ-নদী দখল দেখে কান্না এসে পড়েছে।

১০ ডিসেম্বর, ২০১৯/এসপি/এনটি

উপরে