NarayanganjToday

শিরোনাম

বন্দরে জাপা নেতার বিরুদ্ধে অর্ধ কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগ


বন্দরে জাপা নেতার বিরুদ্ধে অর্ধ কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগ

বন্দর সাব রেজিস্টার দলিল লিখক ও ভেন্ডার সমিতির সভাপতি গিয়াস উদ্দিন চৌধুরীর(ভেন্ডার) বিরুদ্ধে সমিতির  অর্ধকোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগ উঠেছে।

রোববার (১৫ জুলাই) দুপুরে বন্দর সাব রেজিস্টার অফিসের সামনে সমিতির শতধিক দলিল লিখক প্রতিবাদ সভা ও বিক্ষোভ করেন।

সিনিয়র দলিল লিখক অলিউল্লাহ মিয়ার সভাপতিত্বে সমিতির সাধারণ সম্পাদক হুমায়ূন কবির মৃধাসহ বিক্ষোভে বক্তব্য দেন দবির উদ্দিন, খোকন মিয়া, আমির হোসেন, মনির হোসেন, আ: করিম দেওয়ান, আবুল হোসেন সরকার, গোলজার হোসেন, শরীফ হোসেন, নজরুল ইসলাম, জসিম উদ্দিন, রিপন, রনক, সাঈদ, আ: মান্নান, লিটু, রহিম, মাসুম ভূইয়া ও জাহিদ প্রমুখ।

বক্তরা বলেন, এমপির দেয়া কমিটি সমিতির সদস্যরা মেনে নিয়ে এমপিকে সন্মান জানিয়ে গ্রহণ করার পর বিগত দুই বছরে গিয়াস উদ্দিন চৌধুরী সভাপতির দাযিত্ব পাওয়ার পর থেকে সমিতির কোন হিসাব না দিয়ে প্রায় অর্ধকোটি টাকা আত্মসাত করেছে।

সকলে তার অপসারন দাবিসহ নির্বচানের মাধ্যমে নতুন কমিটি গঠনের তাগিদে দেন। এ সময় জেলা জাতীয়পার্টির সভাপতি আবুল জাহের ঘটনাস্থলে এলে সমিতির সদস্যরা তার কাছে সভাপতির বিরুদ্ধে কঠোর অভিযোগ দেন।

এ সময় আবুল জাহের বলেন, আপনারা গণতান্ত্রিক ভাবে নির্বাচনের মাধ্যমে কমিটি গঠন করুন এমপি সাহেব তাতে হস্তক্ষেপ করবে না।

এ সময় সমিতির সদস্যরা আরও বলেন, সমিতির সভাপতি বিভিন্ন সদস্যকে সনদ বাতিল করে দেয়ার হুমকি দেয়। এবং সে হজে যাওয়ার জন্য প্রস্তুতি নিলে অনিয়মতান্ত্রিক ভাবে কমিটির সদস্য ব্যতিত পাভেল খান নামক ব্যক্তিকে সমিতির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি নিযুক্ত করেন। যা সম্পূর্ন অগনতান্ত্রিক ও ক্ষমতার অপব্যবহার।

এছাড়া বর্তমান সাব রেজিস্টারের সাথে আতাত করে অনেক অনিয়ম ও দুর্নীতি করে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে। তার বাড়িতে সাব রেজিস্টার অফিস এনে সাব রেজিস্টারের সাথে মিলে অনেক সরকারি জমি আত্মসাতসহ অনেক অনিয়ম করেছে।

জেলা জাতীয়পার্টির সভাপতি সবাইকে শান্ত থেকে নিয়মতান্ত্রিক ভাবে নতুন কমিটি করার আহবান জানিয়ে পরিস্থিতি শান্ত করেন। সমিতির সদস্যরা সভাপতি বিরুদ্ধে আইনী পদক্ষেপ নিবেন বলেও সিদ্ধান্ত নেন।

১৫ জুলাই,২০১৮/এসপি/এনটি

উপরে