NarayanganjToday

শিরোনাম

রূপগঞ্জে ৪০টি ইছারমাথা’র চাকা কর্তন, ৪ জনের কারাদণ্ড


রূপগঞ্জে ৪০টি ইছারমাথা’র চাকা কর্তন, ৪ জনের কারাদণ্ড

রূপগঞ্জ উপজেলার দাউদপুর ইউনিয়নের বিভিন্ন এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে নিষিদ্ধ ও অবৈধ (ইছারমাথা) নামের ৪০টি যানের চাকা কেটে দিয়ে ইঞ্জিন বিকল করে দিয়েছে উপজেলা প্রশাসন।

বুধবার দুপুরে বেলদি, দুয়ারা, দেবই, কাজিরবাগ, শিমুলিয়া, আগলা ও সোম এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে নিষিদ্ধ ও অবৈধ (ইছারমাথা) নামের যানের চাকা কেটে দিয়ে ইঞ্জিন বিকল করে দেয়া হয়।

এসময় চার জনকে আটকের পর পাঁচ দিন করে বিনাশ্রম কারাদন্ড প্রদান করেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। অভিযানে নেতৃত্ব দেন, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আবুল ফাতে মোহাম্মদ সফিকুল ইসলাম এবং সহকারী কমিশনার (ভুমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আসাদুজ্জামান। এসময় রূপগঞ্জ থানার উপ-পরিদর্শক সাব্বিত আহাম্মেদসহ একদল পুলিশ উপস্থিত ছিলেন।

উপ-পরিদর্শক সাব্বিত আহাম্মেদ জানান, দাউদপুর ইউনিয়নের বিভিন্ন এলাকায় কয়েক শতাধীক নিষিদ্ধ ও অবৈধ (ইছারমাথা) নামের যান চালাচ্ছেন স্থানীয় প্রভাবশালীরা। এসব যান মাটি, বালু ও ইট বহন কাজে ব্যবহৃত হয়। অদক্ষ চালকের দ্বারা চালিত এসব যান প্রায় সময় সড়ক দুর্ঘটনা ঘটিয়ে আসছে। অবৈধ এসব যান বন্ধের দাবিতে এলাকাবাসী মানববন্ধন কর্মসুচীও পালন করেছে।

দুপুরে বেলদি, দুয়ারা, দেবই, কাজিরবাগ, শিমুলিয়া, আগলা ও সোম এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে নিষিদ্ধ ও অবৈধ (ইছারমাথা) নামের ৪০টি যানের চাকা কেটে দিয়ে ইঞ্জিন বিকল করে দেয়া হয়। এছাড়া শিমুলিয়া এলাকার ইসলাম মিয়ার ছেলে সাজ্জাদ হোসেন, আব্দুল লতিফের ছেলে লোকমান হোসেন, দিঘুলিয়া এলাকার মমতাজ উদ্দিনের ছেলে মাসুদ মিয়া ও সুলফিনা এলাকার মজিদের ছেলে সোহেল আটক করা হয়। পরে ভ্রাম্যমাণ আদালত বসিয়ে তাদের প্রতি জনকে পাঁচ দিন করে বিনাশ্রম কারাদন্ড প্রদান করা হয়।

ইউএনও আবুল ফাতে মোহাম্মদ সফিকুল ইসলাম বলেন, নিষিদ্ধ ও অবৈধ (ইছারমাথা) নামের যান চলাচল সম্পূর্ণ বন্ধ করতে এ অভিযান চলবে।

৫ ডিসেম্বর, ২০১৮/এসপি/এনটি

উপরে