NarayanganjToday

শিরোনাম

সিদ্ধিরগঞ্জে অন্তঃসত্বা বধূকে জবাই করে খুন


সিদ্ধিরগঞ্জে অন্তঃসত্বা বধূকে জবাই করে খুন

সিদ্ধিরগঞ্জ থেকে অন্তঃসত্বা এক নারীর জবাই করা মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। শুক্রবার (২৮ ডিসেম্বর) সকালের দিকে ৮ নং ওয়ার্ডের ধনকুন্ডা এলাকা থেকে এই মরদেহ উদ্ধার করে সংশ্লিষ্ট থানা পুলিশ।

নিহত ওই নারী কুমিল্লার মুরাদ নগর এলাকার কাউছার আহম্মেদ পলাশের স্ত্রী মুক্তা আক্তার (২২), জানিয়েছেন এলাকাবাসী। ঘটনার পর থেকেই পলাতক রয়েছেন স্বামী। তারা গত তিন মাস আগে স্থানীয় আব্দুল হাকিমের ভাড়া বাড়িতে উঠেছিলো।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, শুক্রবার সকালের দিকে তাদের বন্ধ ঘরের জানালা দিয়ে খাটের উপর রক্তাত্ব মুক্তা আক্তারকে পরে থাকতে দেখে। পরে সংশ্লিষ্ট থানায় খবর দিলে পুলিশ এসে মরদেহ উদ্ধার করে। মুক্তা আক্তারের গলাকাটা ছিলো, জানায় প্রত্যক্ষদর্শীরা।

নিহতের মো জোৎসনা বেগম ও বাবা জয়নাল আবেদীন খবর পেয়ে ঘটনাস্থল সিদ্ধিরগঞ্জে ছটে আসেন। তাদের মধ্যে জোৎসনা বেগম জানান, ‘৩ বছর আগে মেয়ের বিয়ে দেন কাউছারের সাথে। বিয়ের পর থেকেই মেয়েকে নানা ভাবে নির্যাতন করতো সে। বছর দেড়েক আগে একবার ছাড়া-ছাড়িও হয়েছিল। দুই মাস আগে আমার মেয়েকে আবার নিয়ে আসে। আমার মেয়ে হত্যার বিচার চাই।’

নিহতের মা আরও জানান, ‘গতকাল মুক্তার চাচা মারা গেছে। আমরা অনেক ফোন করেও যখন মুক্তাকে পাচ্ছি না, তখন গ্রাম থেকে লোক পাঠাই এখানে। সকালে এসে দেখে ঘর তালা মারা। তখন বাড়িয়ালাকে ডেকে ঘরের তালা ভেঙ্গে আমার মেয়ের লাশ পায়।’ তিনি জানান মুক্তা আক্তার অন্তঃসত্বা ছিলেন।

সিদ্ধিরগঞ্জ থানার উপ-পরিদর্শক কামরুল ঘটনাস্থল থেকে মরদেহটি উদ্ধার করেন। এছাড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শাহীন পারভেজ ও ৮নং ওর্য়াড কাউন্সিলর রুহুল আমিন মোল্লা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

২৮ ডিসেম্বর, ২০১৮/এসপি/এনটি

উপরে