NarayanganjToday

শিরোনাম

রূপগঞ্জের দুর্ণীতিবাজ সাবরেজিস্ট্রারের আপসারণ দাবিতে মানববন্ধন


রূপগঞ্জের দুর্ণীতিবাজ সাবরেজিস্ট্রারের আপসারণ দাবিতে মানববন্ধন

ঘুষ নেয়া ও দুর্ণীতি বন্ধ ও রূপগঞ্জ পশ্চিম সাবরেজিষ্ট্রারের অপসারণের দাবিতে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ কর্মসুচী পালন করেছে ভুক্তভোগী লোকজনসহ এলাকাবাসী। বুধবার দুপুরে উপজেলার মঠেরঘাট এলাকার রূপগঞ্জ প্রেসক্লাব কার্যালয়ের সামনে এ মানববন্ধন ও বিক্ষোভ কর্মসুচী পালন করা হয়। মানববন্ধনে এলাকার কয়েক শতাধীক এলাকাবাসী উপস্থিত ছিলেন।

এসময় বক্তব্যে রাখেন, দড়িকান্দি এলাকার ভুক্তভোগী নুরু মিয়া, হাটাবোর এলাকার আবুল হোসেন, আনোয়ার হোসেন, গোয়ালপাড়ার রফিকুল ইসলাম, বাগবেড় এলাকার শুক্কুর আলী, আব্দুর রহমান, আমিনুল, নগড়পাড়া এলাকার আনোয়ার হোসেনসহ আরো অনেকে।

মানববন্ধনে বক্তারা অভিযোগ করে বলেন, রূপগঞ্জ পশ্চিম সাব-রেজিষ্ট্রার শহিদুল ইসলাম যোগদান করার পর থেকেই  ঘুষ বানিজ্যে শুরু করে দেন। ঘুষ দিলে দলিল সম্পাদনা হয় আর না দিলে বিভিন্ন মারপেচ দিয়ে সম্পাদনা বন্ধ রাখা হয়। বিশেষ করে পাওয়ার অব অ্যাটর্নি দলিলে কোন ফি না নেয়ার নিয়ম থাকলেও এক্ষেত্রে দলিল প্রতি ঘুষ দিতে হয় ১৫০০ টাকা থেকে শুরু করে ১০ হাজার টাকা। হেবা ঘোষণা দলিল ফি-বিহীন করার বিধান থাকলেও সাব-রেজিষ্টারকে দিতে হয় ১২০০ থেকে ২০০০ টাকা। বন্টননামা দলিলে নেওয়া হয় পাঁচ থেকে ৫০ হাজার টাকা। কোন দলিলের মূল পর্চা না থাকলে ফটোকপি পর্চায় নেওয়া হয় পাঁচ হাজার টাকা। এছাড়া দলিলের নকল তুলতে দলিলপ্রতি নেওয়া হয় দুই হাজার টাকা। শুধু তাই নয়, সাব-রেজিষ্ট্রার শহিদুল ইসলামের হাত থেকে সরকারী জমিও রক্ষা পাচ্ছেনা। ঘুষের বিনিময়ে সরকারী জমি সাব-কাবলা দলিল করে দিচ্ছেন তিনি। আর নিয়মের বাইরে ঘুষের টাকা না দিলেই নিরীহদের হয়রানি হতে হয়।

ঘুষ নেয়া ও দুর্ণীতি বন্ধ ও রূপগঞ্জ পশ্চিম সাবরেজিষ্ট্রারের অপসারণের দাবি জানান ভুক্তভোগী লোকজনসহ মানববন্ধনে আসা এলাকাবাসী।

৯ জানুয়ারি, ২০১৯/এসপি/এনটি

উপরে