NarayanganjToday

শিরোনাম

শহরে আবারও জিএম আরাফাত ও আইভী’র ‘কথিত’ মামা গ্রুপের সংঘর্ষ


শহরে আবারও জিএম আরাফাত ও আইভী’র ‘কথিত’ মামা গ্রুপের সংঘর্ষ

আবারও নগরীর রাসেল পার্কের কাছে দোকান বসানোকে কেন্দ্র করে মেয়রের কথিত মামা আনোয়ার ও এলাকাবাসীর মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া ও সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এলাকাবাসীর পক্ষে নেতৃত্ব দেন মহানগর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক জিএম আরাফাত।

শনিবার (১৬ ফেব্রুয়ারি) দুপুরের দিকে শহরের রাসেল পার্ক লেকপাড় এলাকাতে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় উভয় গ্রুপের মধ্যে চারজন আহত হয়েছেন।

এদিকে মংঘর্ষের খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করেন। তবে, এ ঘটনার পর থেকে পুরো এলাকাজুড়ে ব্যাপক উত্তেজনা বিরাজ করছে। ধারণা করা হচ্ছে আবারও যে কোনো সময় আরও বড় ধরণের ঘটনা ঘটতে পারে।

সূত্র জানায়, ১৪ ফেব্রুয়ারি রাসেল পার্কের কাছে মেয়র আইভীর নাম ভাঙিয়ে দোকান বসিয়ে চাঁদাবাজি করার অভিযোগ এনে এলাকাবাসীর সাথে মেয়রের কথিত মামা আনোয়ার হোসেন গ্রুপের সাথে সংঘর্ষ হয়। এ ঘটনার পর থেকেই দুই পক্ষের মধ্যে উত্তেজন চলছিলো। সেই উত্তেজনার পারদ আবারও ছড়িয়ে পড়ে শনিবার।

এদিন সকাল থেকেই উভয় গ্রুপের মধ্যে উত্তজনা দেখা দেয়। এরমধ্যে মেয়র আইভী কথিত মামা আনোয়ার পুনরায় দোকান বসানোর উদ্যোগ নিলে এলাকাবাসী এসে বাধা প্রদান করলে উভয় পক্ষের মধ্যে শুরু হয় ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া ও সংঘর্ষ। এলাকাবাসীর পক্ষে নেতৃত্ব দেন মহানগর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক জিএম আরাফাত।

প্রত্যক্ষদর্শী জানায়, লাঠিসোটা নিয়ে উভয় পক্ষ একে অপরের পক্ষের উপর হামলা চালায়। একপক্ষ চায় লেকপাড়ে দোকান বসাবে আরেক পক্ষ বসাতে দিবে না এমন ঘটনাকে কেন্দ্র করেই এই সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে।

পুলিশ জানায়, খবর আমরা দ্রুত ঘটনাস্থলে আসছি। দুই পক্ষকেই ধাওয়া দিয়ে সরিয়ে দিয়েছি। এটা এলাকা কেন্দ্রিক ঘটনা। বর্তমানে পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে। অভিযোগ পেলে অবশ্যই ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

আরাফাত জানান, এখানে দোকান বসিয়ে কোনো চাঁদাবাজি করতে দেওয়া হবে না। এলাকাবাসী এলকানে কোনো দোকান চায় না। আমরা সেটি বন্ধ করে দিয়েছিলাম সেদিন। এ কারণে আজকে তারা জোটবদ্ধ হয়ে আমাদের উপর হামলা করছে।

তিনি জানান, যদি আমাদের মেয়র এখানে দোকান বসানোর অনুমতি দেওয়া হয় তাহলে এলাকাবাসী সেটি প্রতিহত করবে। এখানে মর্গ্যান স্কুলের পাশে একটি মেলা দিয়ে রাখছে। এখান থেকে চাঁদাবাজি করা হচ্ছে। স্কুল চলাকালে এখানে বখাটেরা গানবাজনা করে উচ্ছৃখলতা করে।

মেয়র আইভীর কথিত মামা আনোয়ার হোসেন জানান, সিটি করপোরেশন থেকে অনুমতি দিয়েছে লেকপাড়ে দোকান বসানোর জন্য। এখানে কিছু গরীব মানুষ দোকান পাইছে। এর ফলে এখানে দোকান বসানো হচ্ছিলো। কিন্তু এতে ওরা (আরাফাত) প্রায় বিশ পঁচিশজন এক হয়ে চাঁদাবাজি করতে চায়, ওদের কোনো কাজকর্ম নাই, এভাবে চাঁদা তুলে খায়। এই চাঁদা না পেয়ে তারা অতর্কিত হামলা চালিয়ে মারধর করে।

তিনি বলেন, সিটি করপোরেশন থেকে টেন্ডারের মাধ্যমে এখানে মেলার আয়োজন করা হইছে। ওরা (আরাফাত) এখান থেকে ধান্ধাবাজি করতে মেলা বন্ধ করার হুমকি দিচ্ছে। আপনারা (সাংবাদিক) খোঁজ নিয়ে দেখেন, লেকপাড়ে যারা দোকান বসাচ্ছে তারা খুবই গরীব মানুষ।

আনোয়ার হোসেন দাবি করেন, আরাফাত বাহিনী হামলা চালিয়ে তাদের চার পাঁচজনকে পিটিয়ে রক্তাত্ব জখম করেছে। আহতদের হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে। পুলিশ ওদের বিরুদ্ধে মামলা নিতে চাচ্ছে না।

এদিকে সংঘর্ষের ঘটনার পর মর্গ্যান স্কুলের পার্শ্বে সিটি করপোরেশনের অনুমতি নিয়ে গড়ে উঠা কুটির শিল্প মেলা বন্ধ রয়েছে। এর আগে এই মেলা বন্ধে এলাকাবাসী ৪৮ ঘণ্টার আল্টিমেটাম দিয়েছিলো।

১৬ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯/এসপি/এনটি

উপরে