NarayanganjToday

শিরোনাম

রূপগঞ্জে সংখ্যালঘুর ঘরে তালা, জমি লিখে না দিলে হত্যার হুমকি


রূপগঞ্জে সংখ্যালঘুর ঘরে তালা, জমি লিখে না দিলে হত্যার হুমকি
প্রতীকি ছবি

রূপগঞ্জে সংখ্যালঘু এক পরিবারের ঘরে সন্ত্রাসীরা তালা ঝুলিয়ে দিয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। জমি লিখে না দেওয়ার জেরে সংখ্যালঘু নিয়তি রানী দাস নামে এই নারীকে তার চার বছরের নাতনিসহ ঘর থেকে বের করে এই তালা ঝুলিয়ে দেওয়া হয়। শনিবার রাতে উপজেলার তারাব পৌরসভার ঐরাবো এলাকায় ঘটে এ ঘটনা।

এ ঘটনার পর থেকে ওই পরিবার চরম আতঙ্ক ও নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছে। কেননা, ভূমিদস্যুরা  জমি লিখে না দিলে তাদেরকে হত্যার পর শীতলক্ষ্যা নদীতে ভাসিয়ে দেয়ারও হুমকিও দিয়েছে বলে জানিয়েছে পরিবারটি। বর্তমানে ঘরছাড়া এই সংখ্যালঘু পরিবারটি খোলা আকাশের নিচেই রাত্রিযাপন করছেন।

নিয়তি রানি দাস জানান, তিনি তার বাবার ওয়ারিশ সুত্রে মালিক হয়ে এক কাঠা ২০ পয়েন্ট জমিতে ঘরবাড়ি নির্মাণ করে বসবাস করে আসছেন দীর্ঘ দিন ধরে। তার মেয়ের জামাতা মানিক দাস ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়ে গত তিন বছর আগে মারা যান। আর মেয়ে শান্তা রানী দাসও গত পাঁচ মাস আগে ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়ে মারা যায়। এক মাত্র এতিম নাতি মনিষা রানি দাসকে নিয়ে তিনি ওই বাড়িতেই বসবাস করে আসছেন।

তিনি বলেন, এক মাস আগে নাতি মনিষা রানি দাসের সঙ্গে একই এলাকার রাজু মিয়ার ছেলে রিহান খেলাধুলা করছিলো। খেলাধুলার সময় মনিষা রানি দাসের হাতে থাকা একটি বাশের ফালা গিয়ে রিহানের চোখে লাগে। এরপর রিহানের ডান চোখ নষ্ট হয়ে যায়। এ বিষয়টি নিয়ে স্থানীয় গণ্যমাণ্য ব্যক্তিবর্গ বিচারশালিসের মাধ্যমে ৪০ হাজার টাকা জরিমানা করেন। পরে জরিমানার ৪০ হাজার টাকা ভিক্ষা ও দারদেনা করে রিহানের বাবা রাজু মিয়ার কাছে দেন। রাজু মিয়া টাকাগুলো গ্রহন না করে নিয়তি রানি দাসের এক কাঠা ২০ পয়েন্ট বাড়িসহ জমি লিখে দেয়ার জন্য চাপ প্রয়োগ করে আসছে। আর বাড়িসহ জমি লিখে না দিলে তাদের নানি-নাতিনকে হত্যার পর শীতলক্ষ্যা নদীতে ভাসিয়ে দেয়ার হুমকি প্রদান করে।

শনিবার রাতে নিয়তি রানি দাস ও নাতি এতিম শিশু মনিষা রানি দাসকে ঘর থেকে বের করে দিয়ে ঘরে তালা বন্ধ করে দেয় রাজুসহ একদল সন্ত্রাসী। এতে সারারাত খোলাআকাশের নিচে রাত্রিযাপন করতে হয়েছে তাদের।এতিম নাতির মুখের দিয়ে তাকিয়ে বৃদ্ধ নিয়তি রানি দাস প্রশাসনের কাছে সু-বিচার দাবি করেছেন।

এ বিষয়ে তারাব পৌরসভার ৩নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর রাসেল শিকদার বলেন, আমরা বিচার-শালিশের মাধ্যমে বিষয়টি সমাধান দিয়েছি। রাজু মিয়া প্রভাব খাটিয়ে অন্যায় ভাবে নিরীহ নিয়তি রানি দাসের কাছ থেকে জোরপুর্বক বাড়িসহ জমিটি লিখে নেয়ার চেষ্টা চালাচ্ছে। আমরাও প্রশাসনের কাছে এর সু-বিচার প্রার্থণা করছি।

এ বিষয়ে অভিযুক্ত রাজু মিয়াসহ অভিযুক্তদের সঙ্গে যোগাযোগ করার চেষ্টা করেও তাদের পাওয়া যায়নি।

রূপগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুল হক বলেন, ভুক্তভোগি পরিবারটাকে আমার কাছে লিখিত ভাবে অভিযোগ দিতে বলেন। যত বড় প্রভাবশালী বা মাস্তান হোকনা কেন, এ অন্যায় আমি করতে দেবনা। এখনই আমি ব্যবস্থা নিচ্ছি।

১৮ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯/এসপি/এনটি

উপরে