NarayanganjToday

শিরোনাম

‘মামলা তুলে না নিলে পিটিয়ে হাত পা ভেঙ্গে দেবো’


‘মামলা তুলে না নিলে পিটিয়ে হাত পা ভেঙ্গে দেবো’

একটি চেক জালিয়াতি মামলা তুলে না নিলে বাদীকে যেখানে পাওয়া যাবে সেখানেই পিটিয়ে হাত পা ভেঙ্গে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে সেলিম রেজা নামে এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় ভুক্তভোগি ব্যবসায়ী ফিরোজ আল মামুন নারায়ণগঞ্জ সদর মডেল থানায় একটি সাধারণ ডায়েরী করেছেন।

অভিযুক্ত সেলিম রেজা শহরের কালিরবাজার কেসি নাগ রোডের মৃত আলী আমজাদের ছেলে এবং আর এস এন্টারপ্রাইজের মালিক। ভুক্তভোগি আল মামুন ফতুল্লার পূর্ব শিয়াচর এলাকার ফরিদ উদ্দিনের ছেলে।

জিডি সূত্রে জানা গেছে, ২০১৭ সালে ব্যবসায়ী ফিরোজ আল মামুনের কাছ থেকে দুই লাখ ১৫ হাজার টাকা ধার হিসেবে গ্রহণ করেন হাজী সেলিম রেজা। এই টাকা চাইতে গেলে নানা টালবাহানা শুরু করে সেলিম। একপর্যায়ে সেলিম রেজা ব্যবসায়ী মামুনকে দুই লাখ ১৫ হাজার টাকার একটি চেক প্রদান করেন। পরবর্তীতে চেক দিয়ে নির্দিষ্ট ব্যাঙ্ক একাউন্টে কোনো টাকা না থাকায় চেকটি ডিজঅনার হয়। পরে এ ঘটনায় আদালতে মামলা দায়ের করেন প্রতারিত ব্যবসায়ী মামুন।

এদিকে মামলা দায়েরের পর সেলিম রেজা ক্ষিপ্ত হয়ে ব্যবসায়ী মামুনের ব্যবহৃত মোবাইলে গালিগালাজ করে মামলা তুলে নিতে হুমকি দেয়। ব্যবসায়ী মামুনকে রাস্তায় পেলেই হাত পা ভেঙ্গে দিবে। আর নিজের জীবনের নিরাপত্তার চিন্তা করে ব্যবসায়ী মামুন বাদী হয়ে সেলিম রেজার বিরুদ্ধে নারায়ণগঞ্জ সদর মডেল থানায় একটি সাধারন ডায়েরী করে।

ব্যবসায়ী মামুন জানান, সেলিম রেজা শহরের প্রভাবশালী পরিবারের সন্তান হিসাবে দাবি করলেও আমার ধেকে নেওয়া ধারের টাকা ফেরৎ না দিয়ে টালবাহানা শুরু করে। আর টাকা চাইতে গেলে এলাকা ছাড়া করে দেয়ার হুমকি দেয়। সেলিম রেজা মানুষের সাথে ভাল আচরণ করে টাকা হাওলাদ নিয়ে প্রতারনা করা তার একটি ব্যবসা। আমার কষ্টের টাকা যদি ফেরৎ না দেয় তাহলে নারায়ণগঞ্জ সদর মডেল থানা পুলিশ কোন পদক্ষেপ গ্রহন না করলে জেলা পুলিশ সুপার হারুন অর রশিদ সাহেবের হস্তক্ষেপ চাইবো।   

১২ মার্চ, ২০১৯/এসপি/এনটি

উপরে