NarayanganjToday

শিরোনাম

শাড়ি নিয়ে সিদ্ধিরগঞ্জ পুলিশের দিনভর নাটকীয় আচরণ


শাড়ি নিয়ে সিদ্ধিরগঞ্জ পুলিশের দিনভর নাটকীয় আচরণ

সিদ্ধিরগঞ্জে বিপুল পরিমানের ভারতীয় শাড়ি কাপড় উদ্ধার নিয়ে দিনভর নানা নাটকীয়তার পর রাতে সাংবাদিকদের তথ্য জানালো সিদ্ধিরগঞ্জ থানা পুলিশ।

বৃহস্পতিবার সকাল ৭টায় ঢাকা-চট্রগ্রাম মহাসড়কের সিদ্ধিরগঞ্জের কাঁচপুর সেতুর পশ্চিম পাশ থেকে বিপুল পরিমানের ভারতীয় শাড়ি কাপড় বোঝাই একটি কভ্যার্ডভ্যান আটক করে সিদ্ধিরগঞ্জ থানার এসআই মো. রফিকুল ইসলাম।

গ্রেফতারকৃত হলো (ঢাকা মেট্রো-ন-১৫-৪৯০৬) এর চালক কুমিল্লা জেলার চান্দিনা থানার মইসেল এলাকার মৃত বাবলু মিয়ার ছেলে মো. রফিকুল (৩০) ও হেলপার কুমিল্লা কতোয়ালী থানার জোরামেস এলাকার সিরাজুল হকের ছেলে।

এদিকে ভারতীয় শাড়ি কাপড় উদ্ধারের খবরটি সাংবাদিকদের মধ্যে জানাজানি হলে সাংবাদিকরা এসআই মো. রফিকুল ইসলামের সাথে যোগাযোগ করলে তিনি থানার ইন্সপেক্টর (তদন্ত) মো. নজরুল ইসলামের সাথে যোগাযোগ করার জন্য বলেন। পরে ইন্সপেক্টর (তদন্ত) মো. নজরুল ইসলামের নিকট মুঠোফোনে জানতে চাইলে তিনি বিষয়টি ডিউটি অফিসারের সাথে যোগাযোগ করতে বলেন। পরে সাংবাদিকরা সিদ্ধিরগঞ্জ থানার ডিউটি অফিসার এএসআই মিলনের সাথে যোগাযোগ করলে তিনি জানায়, শাড়ি উদ্ধারকারি অফিসার এসআই রফিকুল ইসলাম ও তদন্ত স্যারের সাথে যোগাযোগ করেন।

অপরদিকে বিকাল ৫টায় কয়েকজন সাংবাদিককে সিদ্ধিরগঞ্জ ইন্সপেক্টর (তদন্ত) মো. নজরুল ইসলাম জানান, বিষয়টি নিয়ে সন্ধ্যার পর প্রেস ব্রিফিং করা হবে। পরে রাত পৌনে ৮টায় সিদ্ধিরগঞ্জ থানার ইন্সপেক্টর (তদন্ত) মো. নজরুল ইসলাম আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিত্বে সকাল ৭টার ঢাকা-চট্রগ্রাম মহাসড়কের সিদ্ধিরগঞ্জের কাঁচপুর সেতুর পশ্চিম পাশ থেকে বিপুল পরিমানের ভারতীয় শাড়ী কাপড় বোঝাই একটি কভ্যার্ডভ্যানটি আটক করা হয়। পরে কভ্যার্ডভ্যান থেকে ২৬ বস্তা ভারতীয় শাড়ী কাপড় উদ্ধার করা হয়। শাড়ীর মালিকের সন্ধান করতে গিয়ে সাংবাদিকদের তথ্য দিতে বিলম্ব হয়ছে বলে তিনি দাবি করেন।

১৪ মার্চ, ২০১৯/এসপি/এনটি

উপরে