NarayanganjToday

শিরোনাম

ফতুল্লায় আ.লীগের দুই গ্রুপের রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষে আহত ১৫


ফতুল্লায় আ.লীগের দুই গ্রুপের রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষে আহত ১৫

ফতুল্লার ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের দুই পক্ষে মধ্যে আধিপত্য বিস্তার নিয়ে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। শুক্রবার (২২ মার্চ) রাত সাড়ে আটটার দিকে রামারবাগ এলাকায় যুবলীগ নেতা আজমতের ভাগিনা মুরাদ ও একই দলের প্রতিপক্ষ মোস্তফা গ্রুপের সঙ্গে এই সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

সংঘর্ষে উভয় গ্রুপ ধারালো অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে একে উপরের উপর হামলে পরে। এতে দুই পক্ষের অন্তত ১০ থেকে ১৫ জনের মতো আহত হয়েছেন। আহতদের মধ্যে তাৎক্ষণিকভাবে জুয়েল, দেলোয়ার, তমিজ, সজীব, আরিফ, আহাদ, সুমন, সুফিয়া, আলামিন, হারুন, রশিদ, আশরাফের নাম পাওয়া গেছে।

আহতদের উদ্ধার করে নগরীর খানপুর ৩‘শ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়েছে। তবে, দু’জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাদেরকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করেছে খানপুর হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক।

ফতুল্লা মডেল থানা পুলিশের অফিসার-ইন-চার্জ (ওসি) শাহ মোহাম্মদ মঞ্জুর কাদের ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ওই দুই গ্রুপের মধ্যে দীর্ঘদিন ধরেই আধিপত্য বিস্তার নিয়ে দ্বন্দ্ব চলে আসছিলো। এর জের ধরে রাতে দুই গ্রুপ সংঘর্ষে জড়িয়ে যায়। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ উপস্থিত হয়ে পরিস্থিতি শান্ত করে।

তিনি জানান, এখনও এ ব্যাপারে কোনো পক্ষ অভিযোগ দায়ের করেনি। একই সাথে ঘটনার সূত্রপাত কি নিয়ে সে ব্যাপারেও কেউ মুখ খুলছে না। অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন রয়েছে। বিশৃঙ্খলা সৃষ্টিকারীরা যত বড়ই প্রভাবশালী হোক তাদের কঠোর হস্তে দমন করা হবে। সংঘর্ষে জড়িত থাকা সন্দেহে একজনকে আটক করা হয়েছে।

 ২২ মার্চ, ২০১৯/এসপি/এনটি

উপরে