NarayanganjToday

শিরোনাম

সদর উপজেলার সমন্বয় সভায় প্রশাসন ও জনপ্রতিনিধিদের ক্ষোভ


সদর উপজেলার সমন্বয় সভায় প্রশাসন ও জনপ্রতিনিধিদের ক্ষোভ

সদর উপজেলায় মাসিক সমন্বয় সভায় উপজেলা প্রশাসন ও জনপ্রতিনিধিরা ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। বিগত ৬ মাস পর নিয়মিত সমন্বয় সভা না করায় এই ক্ষোভ প্রকাশ করেন তারা।

বৃহস্পতিবার দুপুরে নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলা পরিষদের সম্মেলন কক্ষে উপজেলা চেয়ারম্যান এ্যাডভোকেট আজাদ বিশ্বাসের সভাপতিত্বে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়।

উপজেলা প্রশাসনের উন্নয়ন ও নানা সমস্যা তুলে ধরে তা সমাধানে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়ে থাকে। কিন্তু ৬ মাসে এ বিষয়ে কোন সভা অনুষ্ঠিত হয়নি। ফলে এ নিয়ে উপস্থিত সবাই ক্ষোভ প্রকাশ করেন।

প্রশাসন ও জনপ্রতিনিধিরা সভায় উপস্থিত হয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, সদর উপজেলার ৭টি ইউনিয়ন পরিষদে সরকারের নেয়া অনেক প্রকল্পের উন্নয়ন হয়েছে এবং বিভিন্ন সমস্যা রয়েছে যা উপজেলা প্রশাসন ও জনপ্রতিনিধিদের সমন্বয়ের অভাবে সমাধান হয়নি। এ সভা প্রতিমাসে অব্যাহত রাখার জন্য দাবি জানান প্রশাসন ও জনপ্রতিনিধিরা।

সভায় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) নাহিদা বারিক, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ফাতেমা মনির, বক্তাবলী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সওকত আলী, এনায়েতনগর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আসাদুজ্জামান, গোগনগর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নশেদ আলী প্রমুখ।

সভায় বক্তাবলী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শওকত আলী বলেন, উপজেলা পরিষদের জন্য সমন্বয় কমিটির সভাটি খুবই গুরুত্বপূর্ন কিন্তু কয় মাস আগে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে এখন আর মনে পড়েনা। এছাড়া উপজেলা প্রশাসনে কে কোন দায়ীত্বে আছে তা আমরা জনপ্রতিনিধিরা জানি না ও চিনিও না। সভাটি অব্যাহত থাকলে উন্নয়ন ও সমস্যা নিয়ে কথা বলতে পারবো।

এনায়েতনগর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আসাদুজ্জামান বলেন, ৮/৯ মাস আগে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছি। এরমধ্যে উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে কোন সভা হতে দেখিনি এবং আমন্ত্রণও পাইনি। কয়েকদিন আগে উপজেলা আইনশৃঙ্খলা সভা এবং এখন সমন্বয় কমিটির সভায় উপস্থিত হয়েছি। উপজেলায় এবিষয়ে সভা অনুষ্ঠিত হলে উন্নয়ন ও সমস্যার বিষয়ে আলোচনা করতে পারবো।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) নাহিদা বারিক বলেন, আমি এক সপ্তাহ হয়েছে দায়িত্ব গ্রহন করেছি। আগে কি হয়েছে তা আমি জানি না। আমি উপজেলা প্রশাসন ও জনপ্রতিনিধিদের নিয়ে আলোচনা করে সকল বিষয়ে খোঁজ খবর নিচ্ছি। এখন থেকে সব ধরনের সভা নিয়মিত হবে।

১১ এপ্রিল, ২০১৯/এসপি/এনটি

উপরে