NarayanganjToday

শিরোনাম

ফতুল্লায় গণধোলাইয়ে ছিনতাইকারী নিহতের ঘটনায় আসামী অর্ধশত


ফতুল্লায় গণধোলাইয়ে ছিনতাইকারী নিহতের ঘটনায় আসামী অর্ধশত

ফতুল্লায় ছিনতাইকারী অভিযোগে এলাকাবাসীর গণধোলাইয়ে নিহত যুবক সজিব ও আহত মামুনের পরিচয় শনাক্ত করা গেছে। সজিব মুন্সিগঞ্জ জেলার কাটাখালী গ্রামের কমর উদ্দিনের ছেলে এবং মামুন শহরের গলাচিপা এলাকার নাদিমের বাড়ির ভাড়াটিয়া কমর আলীর ছেলে। সে ঢাকা মেডিকেলে চিকিৎসাধীন।

নিহত সজিবের পরিবার খবর পেয়ে নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে গিয়ে তার মরদেহ শনাক্ত করেন বলে নিশ্চিত করেছেন ফতুল্লা মডেল থানা পুলিশের অফিসার-ইন-চার্জ (ওসি) মো. আসলাম হোসেন। তিনি জানান, নিহত সজিব ও আহত মামুনরা চিহ্নিত ছিনতাইকারী। তাদের বিরুদ্ধে থানা মামলাও রয়েছে।

এদিকে ওই ঘটনায় ফতুল্লা মডেল থানায় অর্ধশতাধিক অজ্ঞাত ব্যক্তিকে আসামী করে পুলিশের এসআই মামুন মিয়া বাদী হয়ে একটি মামলা দায়ের করেছেন। রোববার (১৯ মে) দুপুরে মামলাটি দায়ের করা হয়।

ওসি আসলাম হোসেন জানান, শনিবার ভোর সাড়ে পাঁচটার দিকে ফতুল্লার মাসদাইর এলাকায় কেন্দ্রীয় ঈদগাহের কাছে ছিনতাই করার সময় জনতার গণধোলাইয়ে ছিনতাইকারী সজিব নিহত হয়। এসময় আহত হয় আরো দুজন। তাদের মধ্যে একজন পালিয়ে যায় আর মামুন নামে একজনকে শহরের খানপুর ৩০০ শয্যা হাসপাতালে নিয়ে যায় স্থানীয়রা। তার অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাকে ঢাকা মেডিকেলে ভর্তি করা হয়েছে। এখনো তার অবস্থার উন্নতি হয়নি। এঘটনায় একটি মামলা হয়েছে। নিহত সজিব ফতুল্লায় ভাসমান ছিলো তার কোন বসবাসের ঠিকানা নেই।

তিনি আরও জানান, আইন সবার জন্য সমান। অপরাধীকে হত্যা না করে আইন শৃংঙ্খলা রক্ষাকারি বাহিনীর হাতে সোর্পদ করতে হবে। ঈদকে সামনে রেখে অপরাধীরা সক্রিয় হতে পারে। এতে সকলকে সচেতন হয়ে অপরাধীদের আটক করে আইনের আওতায় আনতে হবে।

১৯ মে, ২০১৯/এসপি/এনটি

উপরে