NarayanganjToday

শিরোনাম

দ্বিতীয় দিনেও চাষাড়ায় বসতে দেওয়া হয়নি বিআরটিসি’র কাউন্টার!


দ্বিতীয় দিনেও চাষাড়ায় বসতে দেওয়া হয়নি বিআরটিসি’র কাউন্টার!

ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ (লিংক রোড) রুটে দুই বছর পর চালু হয়েছে সরকারি বাস সার্ভিস বিআরটিসি এসি বাস। এই সার্ভিসটি ২২ মে আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধনের একদিন পরই চলাচলে বাধা সৃষ্টি করছে ক্ষমতাসীন দলের লোকজন। চাষাড়ায় কোনো ধরণের কাউন্টার বসতে দিচ্ছে না বলে অভিযোগ উঠেছে।

অভিযোগ উঠেছে, ক্ষমতাসীন দলের শীর্ষ এক ব্যক্তির ইন্ধনে চাষাড়ায় বিআরটিসির কাউন্টার স্থাপনে বাধা দেওয়া হচ্ছে। এ ব্যক্তির পক্ষে নারায়ণগঞ্জ বাস মালিক ঐক্য সমিতির লোকজন চাষাড়ায় কাউন্টার স্থাপনে বাধা দিচ্ছে। প্রশাসন থেকেও এ ব্যাপারে কোনো সাহায্য পাচ্ছে না সংশ্লিষ্টরা।

শনিবার (২৫ মে) সরেজমিনে চাষাড়া গিয়ে দেখা গেছে ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ (লিংক রোড) রুটে অন্যান্য বাসের কাউন্টার যথাযথ ভাবে বহাল থাকলেও বিআরটিসি এসি বাসের টিকেট কাউন্টারের জন্য বসানো একটি টেবিল ফাঁকা পড়ে আছে। খোঁজ নিলে জানা যায়, এই রুটে চলাচলরত অন্যান্য বাস সার্ভিসের লোকজন এসে বিআরটিসি কাউন্টারে গিয়ে টিকেট বিক্রেতাকে মারধর করে তাড়িয়ে দিয়েছে।

বিআরটিসি বাস কাউন্টারের পাশেই অপর একটি বাসের সুপারভাইজারের কাছে জানতে চাইলে তিনি নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, বিআরটিসি বাস কাউন্টারের টিকেট বিক্রেতা চলে গেছে। যাবার সময় বলেছে, অন্য কাউন্টারের লোকজন তাকে লাঞ্ছিত করছে। ছাতা ফেলে দিয়েছে। মারধর করেছে। সে টিকতে পারছে না তাই চলে গেছে। যাবার সময় বলে গেছে টেবিলটি দেখে রাখার জন্য।

নারায়ণগঞ্জ বিআরটিসি বাস ডিপোর দায়িত্বরপত প্রকৌশলী জেড এ কামরুজ্জামান এর সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, শুক্রবার চাষাড়ায় কাউন্টার বসাতে গেলে বাস মালিক ঐক্য পরিষদের লোকজন বাধা দেয়। এ ব্যাপারে এসপি সাহেবকে জানানো হয়। শনিবারও কাউন্টারের লোকজনকে মারধর করে তাড়িয়ে দেয়। আমরা ডিসি সাহেবকে জানিয়েছি। থানাতেও অভিযোগ দেব।

তিনি আরও বলেন, এটি একটি সরকারি প্রতিষ্ঠান যা জনগণেনর। অথচ একটি শ্রেণি এটি চলাচলে বাধা দিচ্ছে। এভাবে বাধা সৃষ্টি করলেতো এ রুটে বাস সার্ভিসটি চলতে পারবে না।

এদিকে এ ব্যাপারে জানতে চাইলে ফতুল্লা মডেল থানা পুলিশের অফিসার-ইন-চার্জ (ওসি) মো. আসলাম হোসেন বলেন, এ ব্যাপারটি আমার জানা নেই। কোনো অভিযোগও পাইনি। অভিযোগ পেলে অবশ্যই ব্যবস্থা নেব।

প্রসঙ্গত, নারায়ণগঞ্জ বিআরটিসি ডিপো থেকে ৪৫টি বিআরটিসি এসি বাস সার্ভিস ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ রুটে চলাচল করতো। যা উদ্বোধন করেছিলেন নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনের প্রয়াত সাংসদ নাসিম ওসমান। কিন্তু শামীম ওসমানের মালিকানাধীন শীতল এসি বাস সার্ভিসের ২৬টি বাস এই রুটে উদ্বোধনের সপ্তাহের ভেতরই এই ৪৫টি বিআরটিসি বাস উধাও হয়ে গিয়েছিলো বলে অনেকেই দাবি করেন। সার্ভিসটি বন্ধ হওয়ার নেপথ্যে অনেকেই শামীম ওসমানের মালিকানাধীন শীতল এসি বাস সার্ভিসকেই দায়ী করেছিলেন।

তবে, দুই বছর পর ২২ মে বাংলাদেশ সরকারের সেতু ও যোগাযোগ মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের পুনরায় ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ রুটে বিআরটিসি এসি বাসের উদ্বোধন করেন। এই রুটের যাত্রী সাধারণের জন্য ১৫ টি বাস ইতোমধ্যে চলাচল শুরু করে। যার ভাড়া ম-লপাড়া থেকে ৫৫ টাকা এবং চাষাড়া থেকে ৫০ টাকা। তবে, চাষাড়া থেকে ঢাকায় চলাচল করা শামীম ওসমানের মালিকানাধিন এসি বাস সার্ভিস শীতলের ভাড়া ৫৫ টাকা। ফলে বিআরটিসির ভাড়া ৫০ টাকা করায় শীতলে এর প্রভাব পড়ছে। ফলশ্রুতিতে মূল বাধাটা সেখান থেকেই আসছে বলে মনে করছেন সচেতন মহল।

২৫ মে, ২০১৯/এসপি/এনটি

উপরে