NarayanganjToday

শিরোনাম

মাদক ব্যবসায়ী যদি আমারও কেউ হয়, তাকেও ছাড় দিবেন না : পলাশ


মাদক ব্যবসায়ী যদি আমারও কেউ হয়, তাকেও ছাড় দিবেন না : পলাশ

জাতীয় শ্রমিক লীগ কেন্দ্রীয় কমিটির শ্রমিক উন্নয়ন ও কল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক কাউসার আহম্মেদ পলাশ বলেছেন, এই রাস্তা দিয়ে মানুষ চলাফেরা করতে পারতো না। অনেক কষ্টের বিনিময়ে এই রাস্তা হয়েছে। রাস্তা হওয়ার পরেও যদি সাধারন মানুষের চলাচলে কষ্ট হয়, তাহলে রাস্তার কি দরকার।

শনিবার (২০ জুলাই) বিকালে দৃঢ়তা যুব সংঘ এর  উদ্যোগে  আলীগঞ্জ স'মিল রোড এর  স্পিড বেকার সংস্কার  কাজের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে এ সব কথা বলেন তিনি।

পলাশ বলেন, যে যার মত স্পিড ব্রেকার দিয়ে রাস্তাটি নষ্ট করে ফেলেছে। এই রাস্তার মধ্যে এতই স্পিড ব্রেকার দিয়েছে সাধারন মানুষ রিকশায় ঠিক মত চলাচল করতে পরছেনা। এই স্পিড ব্রেকারের জন্য রিকশা থেকে পরে অনেকেই আহত হয়েছে। তাই যেখানে স্পিড ব্রেকারের প্রেয়োজন সেখানে স্পিড ব্রেকার রেখে বাকিগুলো ভেঙ্গে দেওয়া হবে। আর বাকি গুলোকে সংস্কার করা হবে।

এসময় পলাশ মাদক ব্যবসায়ীদের উদ্দেশ্যে বলেন, আলীগঞ্জে যারা মাদক বিক্রি করেন আজকে শেষ বারের মত তাদেরকে সাবধান করে দিলাম। এর পরেও যদি আলীগঞ্জে মাদক বিক্রি হয় কেউ যদি মাদকের শেল্টার দেয় তাহলে পুলিশ নয় আমি তাদেরকে ধরে যা করা দরকার আমি সেই ব্যবস্থা নিব। যেই হোক না কেন আমি তাদেরকে ছাড় দিবনো।

তিনি আরো বলেন, আলীগঞ্জের কিছু মুখোশ দারি শয়তানরা এই মাদক ব্যবসার সাথে জড়িত রয়েছে। তারা অন্তরালে থেকে মাদক ব্যবসা করছে এবং মাদক ব্যবসার সেল্টার দিচ্ছে। তারা মাদক ব্যবসা ছেড়ে ভালো হয়ে যান। তা নাহলে আপনাদের জন্য খারাপ কিছু অপেক্ষা করছে। তা আপনারা কল্পনাও করতে পারবেনা।

অনুষ্ঠান শেষে আলীগঞ্জের যেখানে যেখানে মাদক ব্যবসা হয় পলাশ গিয়ে সেখানকার লোকদের বলে দেয় আপনারা তাদেরকে ধরে আমার কাছে নিয়ে আসবেন। যদি আমার কেউ হয় তাহলেও আপনারা তাকে ছাড় দিবেনা। কারন মাদক ব্যবসায়ীরা কারো কিছু হয়না।

পলাশ দৃঢ়তা যুব সংঘ এর সকলকে মাদকের বিরুদ্ধে দাঁড়ানোর পাশা পাশি এলাকার উন্নয়নের কাজ করার আহবান জানান।

দৃঢ়তা যুব সংঘ এর  সভাপতি  আনোয়ার  শাহাদাৎ  জনি এর  সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন, কুতুবপুর ইউনিয়ন পরিষদের ৭নং ওয়ার্ড মেম্বার জাহাঙ্গীর আলম,  আলীগঞ্জ  ক্লাবের সহ সভাপতি ফরিদ উদ্দিন, আলীগঞ্জ ক্লাবের  কোষাধ্যক্ষ হাজী মো. আরিফুল ইসলাম।

এসময় উপস্থিত ছিলেন, দক্ষিন বঙ্গের লাইন সম্পাদক আবুল হোসেন, ইউনাইটেড ফেডারেশন গার্মেন্ট ওয়ার্কার্স এর সভাপতি শাহাদাত হোসেন সেন্টু, সাধারন সম্পাদক কবির হোসেন রাজু, নারায়ণগঞ্জ জেলা শ্রমিক  লীগের সি. সহ সভাপতি অ্যাড.  হুমায়ূন কবির।

অনুষ্ঠান আয়োজন করেন, শ্যামল, মো.  হাবিব, মো. বাপ্পি, মো. মাসুম, মো. সাঈদুল , মুকুল,  আলমগীর, শেখ  সুমন,  নুরমোহাম্মদ, অরপন আহম্মেদ, মো. রাসেল, মো. কবির, মো. লিটন।

২০ জুলাই, ২০১৯/এসপি/এনটি

উপরে