NarayanganjToday

শিরোনাম

দেওভোগে মুখোশধারীদের এলোপাথাড়ি কোপে যুবক নিহত, আহত ৮


দেওভোগে মুখোশধারীদের এলোপাথাড়ি কোপে যুবক নিহত, আহত ৮

সদর উপজেলার ফতুল্লায় মোটর বাইকের হেড লাইটের রশ্মিকে কেন্দ্র করে মুখোশধারীদের এলোপাথাড়ি কোপে শাকিল নামে এক যুবক নিহত হয়েছে। এ ঘটনায় আরও অন্তত সাত থেকে আটজনের মত আহত হয়েছে।

শনিবার (২৭ জুলাই) রাত পৌনে ১১ টার দিকে এ ঘটনাটি ঘটে উপজেলার দেওভোগ মাদরাসা রোডের হাসেম বাগ এলাকায়। আহতদের উদ্ধার করে নগরীর নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে।

নিহত শাকিল দেওভোগ পূর্বনগর এলাকার মৃত. আমান উল্লাহর ছেলে। এবং আহতরা হলেন, শাওন, সজিব, সুভাষের নাম পাওয়া গেলেও তাৎক্ষনিক ভাবে অন্যদের নাম জানাযায়নি।

আহতদের মধ্যে শুভাষ জানান, তিনি শহরের ২নং রেলগেইট এলাকা থেকে বাংলাবাজার বাসায় মোটরসাইকেল যোগে রাত পৌনে ১১টায় ফেরার পথে দেওভোগ হাসেম বাগ এলাকায় একদল মুখোশধারী যুবক পথরোধ করে এলোপাথারী কোপাতে শুরু করে। এসময় আশপাশের লোকজন ছুটে আসলে তাদের উপরও ধারালো অস্ত্র নিয়ে হামলা চালায়। কিন্তু কী কারণে ওই মুখোধারীরা এভাবে কুপিয়েছে তা জানি না।

স্থানীয়রা জানান, স্থানীয় হাসান গ্রুপের সন্ত্রাসী চান্দু, নিক্সন, তুহিন ও তার বন্ধুরা মুখোশ পরে সড়কের উপর দাঁড়িয়ে ছিলো। তখন এক ব্যক্তি মোটর সাইকেল চালিয়ে যাচ্ছিলো। ওইসময় মোটর সাইকেলের হেড লাইটের রশ্মি তাদের চোঁখে পড়ে। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে মোটর সাইকেল আরোহীর উপর প্রথমে তারা হামলা চালায়। এ ঘটনায় আশপাশের লোকজন এগিয়ে গেলে তাদের উপর অস্ত্রশস্ত্রে সজ্জিত সুন্ত্রাসীরা হামলে পড়ে।

ফতুল্লা মডেল থানা পুলিশের অফিসার-ইন-চার্জ (ওসি) মো. আসলাম হোসেন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, এ ঘটনায় একজন নিহত হয়েছেন এবং কয়েকজন আহত হয়েছেন। বিস্তারিত জানতে আমিসহ পুলিশের একাধীক টিম ঘটনাস্থলে রয়েছে। পরে বিস্তারিত জানানো হবে।

এদিকে আহতদের উদ্ধার করে নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতাল এবং ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে বলে স্থানীয় সূত্র জানালেও ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ পুলিশ ফাঁড়ির দায়িত্বরত সহকারি উপ-পরিদর্শক (এএসআই) মো. খান জানিয়েছেন এমন কোনো আহত হাসপাতালে ভর্তি নেই।

২৮ জুলাই, ২০১৯/এসপি/এনটি

উপরে