NarayanganjToday

শিরোনাম

শহরের খানপুরে প্রেমিক খুনে মামলা, প্রেমিকার ভাইসহ গ্রেফতার ৫


শহরের খানপুরে প্রেমিক খুনে মামলা, প্রেমিকার ভাইসহ গ্রেফতার ৫

শহরের খানপুরে ফয়সাল নামে এক তরুণ খুনের ঘটনায় মামলা দায়ের হয়েছে। সে প্রেমিকা সামিয়ার সাথে দেখা করতে এলে প্রেমিকার ভাই ও আত্মীয় স্বজনদের মারধরে নিহত হয়।

বৃহস্পতিবার (১ আগস্ট) নিহত ফয়সালের পিতা নূরুজ্জামান বাদী হয়ে সদর মডেল থানায় ওই হত্যা মামলা দায়ের করেন। মামলায় ৬ জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাত আরও ৪ থেকে ৫ জনকে আসামী করা হয়েছে। মামলায় ৫জনকে গ্রেফতার দেখিয়েছে পুলিশ।

গ্রেফতাররা হলেন, ফয়সালের প্রেমিকা সামিয়া আক্তারের বড় ভাই নগর খানপুরের আলতাব হোসেনের ছেলে মো. আসিফ (২০), তার চার বন্ধু একই এলাকার আলম মিয়ার ছেলে সাকিব হোসেন (১৫), আব্দুর রউফের ছেলে মো. মিলন (১৮), মোশারফ হোসেনের ছেলে রওনক হোসেন সানজি (১৭) ও সৈয়দ কায়ূম হোসেনের ছেলে সৈয়দ সায়েম হোসেন (১৮)। ঘটনার পরপর তাদেরকে আটক করা হয়।  তবে এই মামলার এজাহরনামীয় আসামী জিসান দেওনজীর ছেলে শাওন বিন দেওনজী মিম (১৯) এখনও পলাতক রয়েছে।

মামলা দায়ের ও গ্রেফতারের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন সদর মডেল থানা পুলিশের অফিসার-ইন-চার্জ (ওসি) আসাদুজ্জামান। তিনি বলেন, গ্রেফতাররা ঘটনার দায় স্বীকার করে আদালতে জবানবন্দি প্রদানে সম্মত হয়েছে তাই তাদের বিরুদ্ধে রিমান্ড আবেদন করা হচ্ছে না।

মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, নগর খানপুর এলাকার আলতাবের স্কুল পড়–য়া মেয়ে সামিয়া আক্তার (১৪) এর সাথে প্রেমের সম্পর্ক ছিলো সিদ্ধিরগঞ্জের গোদনাইল চৌধুরী পাড়া এলাকার নূরুজ্জামানের ছেলে এসি মিস্ত্রী ফয়সালের। বুধবার বিকেলে সে তার প্রেমিকার একটি মোবাইল ফোন দিতে এলে প্রেমিকা সামিয়ার ভাই আসিফ ও তার বন্ধুরা মিলে তাকে মারধর করে। পরে গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে খানপুর হাসপাতালে নেওয়া হলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

এদিকে ঘটনার সংবাদ পেয়ে পুলিশ খানপুর হাসপাতাল থেকে নিহত ফয়সালের মরদেহ উদ্ধার করে নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে প্রেরণ করে এবং অভিযান চালিয়ে ঘটনার সাথে সম্পৃক্ত ৫ জনকে আটক করে।

১ আগস্ট, ২০১৯/এসপি/এনটি

উপরে