NarayanganjToday

শিরোনাম

পাশের বাড়ির ফ্ল্যাটে নৈশপ্রহরীর গলাকাটা লাশ উদ্ধার


পাশের বাড়ির ফ্ল্যাটে নৈশপ্রহরীর গলাকাটা লাশ উদ্ধার

নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার ফতুল্লার একটি ফ্ল্যাট থেকে আবুল কালাম (৫০) নামে এক নৈশ প্রহরীর গলাকাটা লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। বুধবার (২১ আগস্ট) ভোরে সদর উপজেলার পাগলা পূর্ব শাহীবাজার এলাকায় এমএ মতিনের বাড়ি থেকে এই লাশ উদ্ধার করা হয়।

ফতুল্লা মডেল থানার পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে লাশটি উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য সদরের জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠিয়েছে। নিহতের গলা কাটা এবং মুখে স্কচটেপ প্যাচানো ছিল।

নিহত আবুল কালাম বরিশাল জেলার বাবুগঞ্জ থানার চাতপাশা গ্রামের মৃত. আব্দুল গনি ঢালির ছেলে। তিনি স্ত্রী ও দুই ছেলে এক মেয়ে নিয়ে ফতুল্লার শাহীবাজার এলাকার আলাউদ্দিন ডাক্তারের বাড়িতে ভাড়া থাকেন এবং একই এলাকার হান্নানের নির্মাণাধীন বাড়িতে ৯ হাজার টাকা বেতনে নৈশ প্রহরীর কাজ করতেন বলে জানিয়েছে পুলিশ।

ফতুল্লা মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আসলাম হোসেন বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য জেনারেল হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। মূল ঘটনার রহস্য তদন্ত করে বের করা হবে।

ওসি জানান, বাড়ির মালিক মতিনের মেয়ের জামাই এনায়েত হোসেন তার শ্বশুর বাড়িতে স্বপরিবারে বসবাস করে। পেশায় তিনি একজন ব্যবসায়ী। ঈদের পর ১৫ আগস্ট স্বপরিবারে গ্রামের বাড়ি বরিশালে বেড়াতে যান তারা। যাবার সময় পাশের বাড়ির নৈশ প্রহরী আবুল কালামকে তার ফ্ল্যাটটা দেখা শোনা করার জন্য অনুরোধ করে যান, এরপর থেকে তিনি ওই বাড়িটি দেখাশোনা করতেন।

বুধবার সকাল সাড়ে সাতটায় গ্রামের বাড়ি থেকে এসে দেখতে পান তাদের ঘরের আসবাবপত্র এলোমেলো ও ছড়ানো ছিটানো অবস্থায় আছে। দ্বিতীয় কক্ষেও একই অবস্থা দেখে তৃতীয় কক্ষে গিয়ে দেখেন নৈশ প্রহরী আবুল কালামের মুখে স্কচটেপ প্যাচানো এবং গলা কাটা রক্তাক্ত দেহ খাটের উপর পড়ে আছে।

ফতুল্লা মডেল থানার ওসি আসলাম হোসেন এ ব্যাপারে জানান, ঘটনাস্থলে কোনো চুরি-ডাকাতির ঘটনা এখানে ঘটেনি। তবে কি কারণে এ হত্যাকান্ড ঘটানো হয়েছে তা এখনো নিশ্চিত হওয়া যায় নি।

তিনি জানান, বিষয়টি তদন্ত চলছে। এই হত্যাকান্ডের পেছনে কারা জড়িত তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে এবং জড়িতদের শনাক্ত করে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে। এ ঘটনায় মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে বলেও জানান তিনি।

২১ আগস্ট, ২০১৯/এনটি/এসপি

উপরে