NarayanganjToday

শিরোনাম

সংবাদ চর্চার বিরুদ্ধে যুগের চিন্তার জিডি


সংবাদ চর্চার বিরুদ্ধে যুগের চিন্তার জিডি

বিভ্রান্তিকর উদ্দেশ্য প্রনোদিত হয়ে সংবাদ প্রকাশ করায় সংবাদ চর্চা পত্রিকার সম্পাদক প্রকাশক মুন্না খাঁন, বার্তা সম্পাদক আনোয়ার হাসান ও সন্ত্রাসীর মদদদাতা ইকবাল হোসেনের বিরুদ্ধে,সাধারণ ডায়রী করেছেন যুগের চিন্তা পত্রিকার নির্বাহী সম্পাদক এজাজ কোরেশী।

২৪ আগস্ট ‘যুগের চিন্তায় হলুদ সাংবাদিক’ শিরোনামে সংবাদ চর্চায় পত্রিকায় একটি সংবাদ প্রকাশিত হয়। এই সংবাদের ঘটনায় রোববার রাতে এজাজ কোরেশী বাদী হয়ে সদর থানায় সাধারণ ডায়রীটি করেন। (জিডি নং-৭৯০)।

ফতুল্লার দেওভোগে মাদ্রাসা এলাকায় হাশেমবাগে প্রায় এক মাস আগে শাকিলকে নির্মমভাবে কুপিয়ে হত্যা করে তাসলিমের শেল্টারে থাকা কিশোর গ্যাংয়ের সদস্যরা। এ ব্যাপারে দৈনিক যুগের চিন্তা পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশিত হয়। শাকিল হত্যাকান্ডে তাসলিমের শেল্টারে থাকা কিশোর গ্যাংয়ের জড়িতের সংবাদটি তাসলিমের বন্ধু ইকবালের গায়ে লাগে।

গত ২৩ আগষ্ট দেওভোগ এলাকায় মশক নিধন কর্মসূচীর আগে,যুগের চিন্তা হলুদ সাংবাদিকতা করেন বলে মন্তব্য করেন ইকবাল। কিন্তু তার এই মন্তব্যের কোন ব্যাখা তিনি দেননি। তার মন্তব্যকে উদ্দেশ্য প্রনোদিতভাবে নিয়ে সংবাদ চর্চা পত্রিকার কর্তৃপক্ষ ‘যুগের চিন্তায় হলুদ সাংবাদিক’ শিরোনামে সংবাদ প্রকাশ করে। এই সংবাদেও কোন ব্যাখাও পত্রিকাটি দিতে পারেননি। এতেই প্রমানিত হয় সংবাদ চর্চা কোন মিশন বাস্তবায়নের জন্যই উদ্ভট ঐ সংবাদটি প্রকাশ করেছে।

 দৈনিক যুগের চিন্তা পত্রিকার নির্বাহী সম্পাদক এজাজ কোরেশী এ ঘটনায়,সংবাদ চর্চার প্রকাশক-সম্পাদক মুন্নাখান,বার্তা সম্পাদক আনোয়ার হাসান ও ইকবাল হোসেনকে বিবাদী করে রোববার রাতে সদর মডেল থানায় সাধারণ ডায়রী করেছেন।

উল্লেখ্য,সংবাদ চর্চায় সংবাদ প্রকাশের পর পরই শীর্ষ সন্ত্রাসী তাসলিমপট্টির গডফাদার তাসলিমের বন্ধু বলে সর্বমহলে পরিচিত ইকবাল হোসাইনকে ফোন করা হয়। তিনি প্রতিবেদককে বলেন, প্রশাসনের কাছে তিনি শাকিল হত্যার বিচার চায়না। সে বিচার চায় আল্লাহর কাছে। শাকিল তার জ্ঞাতি-গোষ্ঠীর কেউনা।

২৬ আগস্ট, ২০১৯/এসপি/এনটি

উপরে