NarayanganjToday

শিরোনাম

তালাকের কথা শুনেই সোহাগীর ‘আত্মহত্যা’, শ্বশুর আটক


তালাকের কথা শুনেই সোহাগীর ‘আত্মহত্যা’, শ্বশুর আটক

সোনারগােয়ে সোহাগী আক্তার (২২) নামের এক প্রবাসীর স্ত্রী গলায় ওড়না পেচিয়ে আত্মহত্যা করেছে বলে অভিযোগ উঠেছে। ঘটনাটি ঘটেছে সোনারগাঁ উপজেলার মোগরাপাড়া ইউনিয়নের সোনাখালি এলাকায়। 

খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে সোহাগীর লাশ উদ্ধার করে জেলা হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করে। এ ঘটনায় সোহাগীর শশুর ইব্রাহিমকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। 

সোহাগীর পরিবার সুত্রে জানা গেছে, গত আট বছর আগে বন্দর উপজেলার মালিবাগ গ্রামের ইব্রাহিমের ছেলে মামুনের সাথে বিয়ে হয় সোহাগীর। বিয়ের পর থেকে শ্বশুর বাড়ির লোক জনের অত্যাচার সহ্য করতে না পেরে একমাত্র ছেলেকে নিয়ে অন্যত্র বসবাস শুরু করেন সোহাগী।

এছাড়া দীর্ঘ দিন ধরে সোহাগী ও স্বামী মামুনের সাথেও তার দাম্পত্য কলহ চলছিল। এ নিয়ে সামাজিক ভাবে একধিকবার সালিশ-বিচারও হয়। সোমবার সকাল ১০ টায় সোহাগীর মামা শ্বশুর মনির হোসেন (৬২) তার স্ত্রী হালিমা (৫০), মো: ইব্রাহিম ও শরীফা সহ ৬/৭ জন সোহাগীর বাড়ি সোনাখালী এসে তার স্বামী মামুন বিদেশ থেকে ইমুর মাধ্যমে তাকে তালাক দিয়েছে বলে জানান এবং তালাক নামা সোহাগীর কাছে দেন। গত ৯ সেপ্টেম্বর মামুন বিদেশ থেকে ইন্টারনেট ইমুর মাধ্যমে সোহাগীকে তালাক দিয়ে সে পত্র সোহাগীর কাছে পৌঁছায়। তালাকপত্র (চিরকুট) পেয়ে স্বামীর সঙ্গে সোমবার রাতে এ বিষয় নিয়ে সোহাগীর ঝগড়া হয়। একপর্যায়ে ক্ষোভে অভিমান করে রাতে সোহাগী তার ছেলেকে ঘুমিয়ে রেখে বাসায় ফ্যানের সঙ্গে গলায় ওড়না পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করে। 

এ ঘটনায় সোহাগীর মামা বাদি হয়ে সোনারগাঁ থানায় একটি লিখিত অভিযোগ করেছেন।

১০ সেপ্টেম্বর, ২০১৯/এমএ/এনটি

উপরে