NarayanganjToday

শিরোনাম

না.গঞ্জের সেই পলাশের জন্য পাঁচ ঘণ্টা জেরার মুখে সিমলা


না.গঞ্জের সেই পলাশের জন্য পাঁচ ঘণ্টা জেরার মুখে সিমলা

সোনারগাঁয়ের ছেলে পলাশ আহম্মেদ দুবাইগামী ময়ূরপঙ্খী ফ্লাইট ছিনতাই চেষ্টায় নিহত হয়েছিলেন। তার স্ত্রী চিত্রনায়িকা সিমলা। এ ঘটনায় চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিট তাকে টানা পাঁচ ঘণ্টা জিজ্ঞাসাবাদ করেছে।

বৃহস্পতিবার (১২ সেপ্টেম্বর) সকাল ১০টা থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত একটানা চলে এ জিজ্ঞাসাবাদ পর্ব। জিজ্ঞাসাবাদে অনেক অজানা প্রশ্নের উত্তর মিলেছে বলে গণমাধ্যমে জানিয়েছেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা পরিদর্শক রাজেশ বড়–য়া।

সিমলার বরাতে রাজেশ বড়ুয়া জানিয়েছেন, ‘২০১৭ সালের ১২ সেপ্টেম্বর পরিচালক রশিদ পলাশের জন্মদিনে সিমলার সঙ্গে পরিচয় হয় পলাশের। সেই সূত্রে পরিচয়ের ছয় মাস পর ২০১৮ সালের ৩ মার্চবিয়ে করেন সিমলা ও পলাশ। বিয়ের পর মাত্র ৯ মাস টিকে ছিল তাদের সংসার। ৯ মাসের মাথায় তালাকের সিদ্ধান্ত নেন তারা। ওই বছরেরই (২০১৮) নভেম্বরে তাদের ডিভোর্স হয়।’

পলাশের সঙ্গে সিমলার বিবাহ বিচ্ছেদের কারণ হিসেবে তিনি জানান, দাম্পত্যজীবনে সুখী হতে না পারা এবং সিমলাকে পলাশের মানসিক নির্যাতনের ঘটনাও ঘটেছিলো।

রাজেশ বড়ুয়া বলেন, ‘জিজ্ঞাসাবাদে অনেক তথ্যই হাতে এসছে। এমন আরো অনেক বিষয় আমরা জেনেছি যা এখনি গণমাধ্যমকে জানানো যাচ্ছে না। তদন্তের সার্থে আমাদের তা গোপন রাখতেই হচ্ছে।’

প্রসঙ্গত, গত ২৪ ফেব্রুয়ারি ঢাকার শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে ৫টা ১৩ মিনিটে ছেড়ে আসা বাংলাদেশ বিমান এয়ারলাইন্সের বিমান বিজি-১৪৭ উড্ডয়নের ১৫ মিনিট পর নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ উপজেলার পলাশ আহমেদ নামে এক যুবক বিমানটি ছিনতাইয়ের চেষ্টা করেন। ৫টা ৪১ মিনিটে বিমানটি শাহ আমানত আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণ করে।

বিমানের ইমার্জেন্সি ডোর দিয়ে যাত্রী ও কেবিন ক্রুদের দ্রুত বের করে আনা হয়। পরে যৌথ বাহিনীর প্যারা কমান্ডো টিমের অভিযানে মারা যান পলাশ আহমেদ।

ঘটনার পর মিডিয়ার মুখোমুখি হয়ে নায়িকা সিমলা বলেছিলেন, ‘দেশের স্বার্থের জন্য আমাকে যদি কোনো প্রশ্নের মুখোমুখি হতে হয় তাহলে আমি তৈরি আছি, নো প্রবলেম, আমি ক্লিয়ার।’

১২ সেপ্টেম্বর, ২০১৯/এসপি/এনটি

উপরে