NarayanganjToday

শিরোনাম

মধ্যরাতে সেই সায়রা গার্ডেনে পুলিশের হানা


মধ্যরাতে সেই সায়রা গার্ডেনে পুলিশের হানা

বন্দরের আলোচিত সায়রা গার্ডেন অ্যান্ড রিসোর্ট। নানা সময়েই এখানে অসামাজিক কাজের খবর পাওয়া যায়। মাদক সেবন থেকে শুরু করে দেহ ব্যবসারও অভিযোগ রয়েছে এখানে। বিতর্কিত এই সায়রা গার্ডেন ও রিসোর্টে তল্লাশী চালিয়েছে নারায়ণগঞ্জ জেলা গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশ ও বন্দর থানা পুলিশ।

২৬ সেপ্টেম্বর রাত বারোটা থেকে প্রায় ঘন্টাব্যাপী বন্দরের মদনপুর এলাকায় অবস্থিত ওই রিসোর্টে এ তল্লাশী চালানো হয়। তবে, এখান থেকে কাউকে আটক বা কোনো অবৈধ কিছু জব্দ করতে পারেনি পুলিশ।

এর আগে ২০১৭ সালের ১৫ জুলাইয়ে ওই রিসোর্টে অভিযান চালিয়ে এর বিভিন্ন কক্ষ থেকে বিয়ার ক্যান, কনডম, সেক্স ট্যাবলেট, মেয়েদের ব্যবহৃত পোশাক-পরিচ্ছদ, উত্তেজক পানীয়দ্রব্য উদ্ধার করা হয়েছিলো। তৎকালীন জেলা প্রশাসক রাব্বি মিয়া ও অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ আবদুল হামিদ মিয়ার নেতৃত্বে ওই অভিযান পরিচালিত হয়েছিলো। ওই সময় রিসোর্ট কর্তৃপক্ষকে সর্তক করে দেওয়া হয়েছিলো।

এদিকে ২৬ সেপ্টেম্বরের অভিযান সম্পর্কে বন্দর থানা পুলিশের অফিসার-ইন-চার্জ (ওসি) মো. রফিকুল ইসলাম বলেন, এটি আমাদের নিয়মিত কার্যক্রমেরই অংশ। রিসোর্টটিতে তল্লাশি চালানো হলেও কাউকে আটক বা কোনো কিছু জব্দ করা হয়নি।

জেলা পুলিশের মিডিয়া উইংয়ের কর্মকর্তা (ডিআইও-২) মো. সাজ্জাদ রোমন জানান, নিয়মিত কার্যক্রমের অংশ হিসেবে এ তল্লাশি চালানো হয়েছে। জেলার অন্যান্য রিসোর্ট ও হোটেলগুলোতেও এমন তল্লাশি চালানো হবে। যেখানে অনিয়ম সেখানেই অভিযান।

সায়রা গার্ডেনের ব্যবস্থাপক (অপারেশন) মোহাম্মদ হক বলেছেন, আমাদের এখানে যারা গেস্ট ছিল তাদের সাথে কথাবার্তা বলেছেন পুলিশ সদস্যরা। সুইমিং পুলের বাইরে যে গেস্ট ছিল তাদের সাথে আলাপ করেছেন তারা।

২৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৯/এসপি/এনটি

উপরে