NarayanganjToday

শিরোনাম

‘মুচলেকা’ দিয়ে থানা থেকে গভীর রাতে মুক্ত রহিম মুন্সি


‘মুচলেকা’ দিয়ে থানা থেকে গভীর রাতে মুক্ত রহিম মুন্সি

শহরের বঙ্গবন্ধু সড়কের ফুটপাত দখলকারীদের মূলহোতা রহিম মুন্সিকে আটকের কয়েক ঘণ্টা পর থানা থেকে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে বলে খবর পাওয়া গেছে।

তবে, পুলিশ বলছে ফুটপাত আর দখল করবে না এমন শর্তে মুচলেকা দেওয়ার পর তাকে ছাড়া হয়েছে।

২১ অক্টোবর রাতে বঙ্গবন্ধু সড়কের ফুটপাত দখল করার অপরাধে রহিম মুন্সিসহ ৫জনকে আটক করেছিলো নারায়ণগঞ্জ সদর মডেল থানা পুলিশ। তবে, এদিন দিবাগত রাত আড়াইটার দিকে থানা হাজত থেকে রহিম মুন্সিকে ছেড়ে দিয়ে অন্য চারজনকে আটক রাখা হয়েছে বলে জানা গেছে।

এ প্রসঙ্গে সদর মডেল থানা পুলিশের অফিসার-ইন-চার্জ (ওসি) আসাদুজ্জামান বলেন, রাতে মুচলেকার মাধ্যমে তাকে ছাড়া হয়েছে। সে দায়িত্ব নিয়েছে ফুটপাত আর দখল হবে না। কোনো হকার আর ফুটপাতে বসবে না। এমন মুচলেকা দেওয়ার পর তাকে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে।

প্রসঙ্গত, ফুটপাত দখল এবং দখলমুক্ত করা নিয়ে মেয়র আইভী ও সাংসদ শামীম ওসমান পন্থীদের মধ্যে ব্যাপক সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছিলো। এরপর কদিন হকারমুক্ত ফুটপাত থাকলেও পরবর্তীতে আবারও ফুটপাত তারা দখল করে নেয়। পরবর্তীতে গত বছর শেষের দিকে নারায়ণগঞ্জে পুলিশ সুপার হিসেবে হারুন অর রশীদ যোগদানের পর হকারদের বিরুদ্ধে হার্ডলাইনে যান। এরপর থেকেই হকাররা ফুটপাত থেকে সরে যায়।

তবে, সম্প্রতি কিছুদিন ধরে হকাররা বঙ্গবন্ধু সড়কের বিভিন্ন পয়েন্টে বসতে শুরু করে। এ নিয়ে একাধিক গণমাধ্যমে সংবাদও প্রকাশ হয়। কিন্তু হকারমুক্ত আর করা সম্ভব হচ্ছিলো না। কেননা, একদিক থেকে হকার উচ্ছেদ করা হলে অন্যদিক থেকে আবার দখল শুরু হয়। এভাবেই গত কদিন চলছিলো। সর্বশেষ ২১ অক্টোবর পুলিশ হকার উচ্ছেদে নেমে হকার নেতা রহিম মুন্সিকে আটক করে থানায় নিয়ে যায়।

২২ অক্টোবর, ২০১৯/এসপি/এনটি

উপরে