NarayanganjToday

শিরোনাম

দিনের পর দিন পিতার লালসার শিকার মেয়ে, মামলায় গ্রেফতার


দিনের পর দিন পিতার লালসার শিকার মেয়ে, মামলায় গ্রেফতার

একদিন নয়, দুদিন নয়, দিনের পর দিন নিজ ঔরশজাত কন্যাকে ধর্ষণ করে যাচ্ছিলো পিতা। মা যখন গার্মেন্টে যেত তখন কিশোরীর পিতা মুসলিম মিয়া (৫০)। দীর্ঘদিন ধরে নিজ পিতার লালসার শিকার হলেও লোকলজ্জার ভয়ে কিশোরী কাউকে কিছু বলেনি।

তবে, ধৈর্যের সীমা ছাড়িয়ে গেলে এমন ন্যাক্কারজনক ঘটনাটি কিশোরী তার মায়ের কাছে জানান। পরবর্তীতে কিশোরীর মা-ও বিষয়টি কাউকে না জানিয়ে মেয়েকে নিয়ে অন্যত্র বাসা ভাড়া নেন। কিন্তু এতেও নিস্তার নেই। মা ও মেয়েকে অবধারিত হুমকি দিয়ে যাচ্ছিলো পিতা নামের ওই লম্পট।

ঘটনাটি সহ্যের চরম সীমা ছাড়ায়। তখন বাধ্য হয়ে বিষয়টি স্থানীয় কয়েকজনকে জানালে তাদের সহযোগিতায় ভুক্তভোগি ওই মেয়ে (১৮) বাদী হয়ে বুধবার (৩০ অক্টোবর) সকালের দিকে বন্দর থানায় পিতার নামে ধর্ষণের অভিযোগ এনে মামলা করেন। পুলিশ মামলা দায়েরের পর এদিন বেলা সাড়ে এগারটার দিকে লম্পট পিতাকে গ্রেফতার করেছে।

গ্রেফতার মুসলিম মিয়া (৫০) বন্দর উপজেলার দক্ষিণ লক্ষণখোলা এলাকার মৃত রিয়া চাঁদের ছেলে।

মামলা দায়ের ও গ্রেফতারের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন বন্দর থানার ওসি (তদন্ত) আজহারুল ইসলাম। তিনি বলেন, ভুক্তভোগি মেয়েকে এক বছর ধরে তার পিতা ধর্ষণ করে আসছিলো। তার মা গার্মেন্টে কাজে গেলে জন্মদাতা পিতা তাকে ধর্ষণ করতেন বলে মেয়ে তার অভিযোগে উল্লেখ করেছে। মামলা দায়েরের পরই অভিযুক্ত মুসলিম মিয়াকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

আজহার আরও বলেন, গ্রেফতার মুসলিম মিয়াকে আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে। ঘটনাটি অত্যন্ত ন্যাক্কারজনক। একজন পিতার কাছে কন্যা সব থেকে বেশি নিরাপদে থাকার কথা। কিন্তু এখানে ঘটেছে এর উল্টোটা। যা আমাদের সবার জন্যই ভীষণ লজ্জাজনক। পুরো বিষয়টি আমরা গুরুত্বের সাথে নিয়েছি।

৩০ অক্টোবর, ২০১৯/এসপি/এনটি

উপরে