NarayanganjToday

শিরোনাম

আমার ও সেলিম ভাইয়ের ভোট চাওয়া উচিৎ না : শামীম ওসমান


আমার ও সেলিম ভাইয়ের ভোট চাওয়া উচিৎ না : শামীম ওসমান

শামীম ওসমান বলেন, আমার কারো কাছে ভোট চাওয়া উচিত না। আমি কেন সেলিম ভাইয়ারও কারো কাছে ভোট চাওয়া উচিত না। আসলে এই সিস্টেমটাই উঠে যাওয়া উচিত। আমি এখন পর্যন্ত কারো কাছে ভোট চাই নাই। কারন সমস্যা আমার না সমস্যা আপনার।

সাংসদ সেলিম ওসমানের মেইল থেকে প্রেরিত সংবাদে এ তথ্য জানানো হয়। এখানে জানানো হয়েছে, শনিবার (১৭ নভেম্বর) রাতে ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ লিংক রুটের সস্তাপুর এলাকায় অবস্থিত নমস্ পার্কে উদযাপিত হয়েছে বিকেএমইএ ২২তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত পুর্নমিলনী অনুষ্ঠানে তিনি ওই কথা বলেছিলেন।

ভোট না চাওয়ার কারন ব্যাখ্যা দিতে গিয়ে শামীম ওসমান বলেন, ব্যক্তিগত ভাবে যদি আপনার একটি ছেলে বা মেয়ে থাকে। ছেলে বা মেয়েকে বিয়ে দেওয়ার সময় আপনি অবশ্যই পাত্র বা পাত্রী সম্পর্কে খুব ভালো ভাবে খোজ নেন। কারন আপনার ছেলের জন্য যদি খারাপ পাত্রী নির্বাচন করেন বা মেয়ের জন্য যদি খারাপ পাত্র ঠিক করেন তাহলে দেখা যাবে একটি সংসারে অশান্তি লেগেই থাকবে। বাবা মায়ের যদি দুটি ছেলে থাকে আর একটি ছেলে যদি ভাল এবং আরেকটি ছেলে যদি খারাপ হয় তাহলে খারাপ ছেলেটির জন্য বাবা মায়ের জীবনে অশান্তি নেমে আসে। ঠিক তেমনি আপনার এলাকার জনপ্রতিনিধি ভাল হবে নাকি খারাপ হবে সেটি নির্বাচিত করার দায়িত্ব আপনাদের। ছেলে খারাপ হলে একটি পরিবার ধ্বংস হয়। আর জনপ্রতিনিধি খারাপ হলে এলাকা ধ্বংস হয়, সমাজ ধ্বংস হয় দেশ ধ্বংস হয়। এখন সিদ্ধান্ত আপনাদের।

জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের নেতাদের ইংগিত করে তিনি বলেন, গরীব মানুষ অভাবে পড়লে তার জমি বিক্রি করে, গোয়ালের গরু বিক্রি, স্ত্রীর গহনা বিক্রি করে। কিন্তু কিছু সুশীল নেতা আছে যারা তারা অভাবে পড়লে দেশ বেচে দেয়। তারাই এখন ক্ষমতায় যাওয়ার স্বপ্ন দেখছে। অতত্রব আপনাদের সিদ্ধান্ত নিতে হবে আপনারা কোন দিকে যাবেন।

ব্যবসায়ীদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, আপনারা যেটা করছেন সেটি নি:সন্দেহে একটি মহৎ কাজ। আমি একজন এমপি হয়েও ১০জন মানুষকে চাকরি দেওয়ার ক্ষমতা আমার নাই। কিন্তু আপনারা এখানে যেকজন উপস্থিত আছেন আপনারা কয়েক লক্ষ মানুষকে চাকরি দিতে পারেন। আপনাদের মাধ্যমে লাখ লাখ পরিবারের মুখে আহার জুটছে। আমরা একটি মায়ের ৩টি সন্তানই এমপি হয়েছি। নারায়ণগঞ্জের মানুষের কাছে আমরা ঋণী।

শামীম ওসমান বলেন, আমি কাজ করতে চাই। আমাকে দিয়ে কাজ করিয়ে নেন। নারায়ণগঞ্জ একটি শিল্প এলাকা। এখানে ব্যবসা করে আপনারা অর্থ উপার্জন করছেন কিন্তু সন্তানদের লেখাপড়া করাবেন কোথায়? অসুখ হলে চিকিৎসা করাবেন কোথায়? আপনারা চাইলে নারায়ণগঞ্জকে একটি আধুনিক নারায়ণগঞ্জ শহর গড়ে তোলা সম্ভব। এমন পরিকল্পনাই আমরা করে রেখেছি।

তিনি বলেন, বর্তমান সরকার নারায়ণগঞ্জে ক্যাবল রেল চালুর পরিকল্পনা করে রেখেছে। দেশের উন্নয়নে আপনাদেরও এগিয়ে আসতে হবে। আমি বিশ্ববিদ্যালয়ের অনুমোদন এনে রেখেছি কিন্তু এগিয়ে আসছে না। একটি মেডিকেল কলেজ করতে যাচ্ছি। প্রয়োজনে সেখানে ব্যক্তি মালিকানার সহযোগীতা নেওয়া হবে। ওয়াল্ডের  বেস্টদের আহবান জানানো হবে। আমরা এমন একটি নারায়ণগঞ্জ গড়তে চাই যাতে করে কেউ তাঁর সন্তানদের ভাল মানের শিক্ষাদান ভাল চিকিৎসা দেওয়ার জন্য সর্বপ্রথম নারায়ণগঞ্জের কথা চিন্তা করে। আর এরজন্য আপনাদের সহযোগীতা সব থেকে বেশি প্রয়োজন।

এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন, সাংসদ সেলিম ওসমান, সংরক্ষিত আসনের নারী সদস্য অ্যাডভোকেট হোসনে আরা বেগম বাবলী, মোহাম্মদ আলী, এমপি সেলিম ওসমানের সহধর্মিনী নাসরিন ওসমান, নারায়ণগঞ্জ চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রির সভাপতি খালেদ হায়দার খান কাজল, বাংলাদেশ ক্লথ মার্চেন্ট অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি প্রবীর কুমার সাহা, বিকেএমইএ এর প্রথম সহ সভাপতি মনসুর আহম্মেদ, দ্বিতীয় সহ সভাপতি ফজলে শামীম এহসান, সহ সভাপতি(অর্থ) হুমায়ন কবির খান শিল্পী, পরিচালক মঞ্জুরুল হক ও আবু আহম্মেদ সিদ্দিক।

১৮ নভেম্বর, ২০১৮/এসপি/এনটি

উপরে