NarayanganjToday

শিরোনাম

যেভাবে ৩টি ডিম খেলেই হতে পারে হার্ট অ্যাটাক


যেভাবে ৩টি ডিম খেলেই হতে পারে হার্ট অ্যাটাক

অনেকেরই প্রতিদিনের খাদ্যতালিকায় ডিম থাকে। কিন্তু এখন মনে করা হচ্ছে ডিম খাওয়াটা আপনার হার্টের স্বাস্থ্যে গুরুতর প্রভাব ফেলতে পারে। যুক্তরাষ্ট্রের নর্থওয়েস্টার্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজ্ঞানীদের নতুন একটি গবেষণায় দেখা গেছে, যাদের খাদ্যতালিকায় প্রতিদিন ডিম থাকে তারা উল্লেখযোগ্যভাবে হৃদরোগে উচ্চঝুঁকিতে থাকে। গবেষণার সহ-লেখক ডা. নরিনা অ্যালেন বলেন, ‘এই নিত্য খাবার সম্পর্কে সতর্কবার্তাটি পুরোপুরি কোলেস্টেরল কেন্দ্রিক, যা বিশেষ করে ডিমের কুসুমে বেশি থাকে।’ তিনি আরো বলেন, ‘স্বাস্থ্যকর খাদ্যতালিকার অংশ হিসেবে লোকজনকে কম পরিমাণে কোলেস্টেরল গ্রহণ করতে হবে। যারা কম পরিমাণে কোলেস্টেরল গ্রহণ করে, তাদের হৃদরোগের ঝুঁকি কম থাকে।’

গবেষকরা প্রায় ১৮ বছর ধরে ৩০ হাজার অংশগ্রহণকারীর খাদ্য ও চিকিৎসা ফলাফল বিশ্লেষণ করেছেন। ফলাফলগুলোর একটি বিশ্লেষণে দেখা গেছে, প্রতি সপ্তাহে যারা ৩-৪টি ডিম খেয়েছিল, তাদের হৃদরোগে উচ্চঝুঁকি ৬ শতাংশ বেশি ছিল এবং মৃত্যুঝুঁকি ৮ শতাংশ বেশি ছিল। এর কারণ হিসেবে ডিমে থাকা কোলেস্টেরলকে দোষারপ করা হয়েছে। প্রতিদিনের সাধারণ যেসব খাবার রয়েছে তার মধ্যে ডিমের কুসুমে সবচেয়ে বেশি কোলেস্টেরল বিদ্যমান। একটি বড় ডিমের কুসুমে প্রায় ১৮৬ মিলিগ্রাম কোলেস্টেরল থাকে।

ডা. অ্যালেন বলেন, ‘আমাদের গবেষণায় দেখানো হয়েছে যদি দুজন মানুষের একই খাদ্য থাকে এবং ডায়েটের মধ্যে পার্থক্যই ডিম থাকে, তাহলে আপনি সরাসরি হৃদরোগে ডিম প্রভাব পরিমাপ করতে পারেন। এর কারণ হিসেবে আমরা কোলেস্টেরল খুঁজে পেয়েছি, যা হৃদরোগের উচ্চঝুঁকি বাড়ানোর সঙ্গে সম্পর্কিত।’ ডিম যদি আপনার পছন্দের খাবার হয়ে থাকে, তাহলে আতঙ্কিত হওয়ার কিছু নেই। গবেষকরা পরামর্শ দিয়েছেন যে, খাদ্যতালিকা থেকে ডিমকে পুরোপুরি বাদ দিতে হবে না। বরং কতগুলো ডিম আপনি খেতে চান সে ব্যাপারে সচেতন হতে হবে।

ডা. অ্যালেন আরো বলেন, ‘আমরা মানুষজনকে মনে করিয়ে দিতে চাই ডিমে কোলেস্টেরল রয়েছে, বিশেষ করে কুসুমে এবং এর ক্ষতিকর প্রভাব রয়েছে। তাই পরিমিত খেতে হবে।’

৩০ র্মাচ,২০১৯/এমএ/এনটি

উপরে