NarayanganjToday

শিরোনাম

ছেলে না থাকলে পুত্রবধূর সাথে এই কাজ করতেন শ্বশুর, অতঃপর


ছেলে না থাকলে পুত্রবধূর সাথে এই কাজ করতেন শ্বশুর, অতঃপর

প্রতিদিনকার একই অশান্তি। দিনের পর দিন নিজের বাবার কাছে নিগৃহত হতে দেখেছে স্ত্রীকে। প্রহৃত হয়েছে সন্তানও। তাই মত্ত বাবার অত্যাচার সহ্য করতে না পেরেই চরম পথ বেছে নিলেন ছেলে। ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে খুন করলেন বাবাকে। ঘটনাটি ঘটেছে কোচবিহারের তুফানগঞ্জের শালবাড়ি এলাকায়।

তুফানগঞ্জের শালবাড়ি এলাকার বাসিন্দা বিশ্বনাথ বর্মন। প্রতিদিনই তিনি মদ খেয়ে বাড়িতে ফেরেন। অভিযোগ, প্রতিদিনই মদ খেয়ে বউমার ওপর অত্যাচার চালাতেন বিশ্বনাথ। বাড়ির আসবাবপত্র ভাঙচুর করতেন বলে অভিযোগ। তাঁর অত্যাচারের হাত থেকে রেহাই পেত না নাতিও। স্ত্রীয়ের উপর এই অত্যাচার অনেকদিন ধরেই মুখ বুজে সহ্য করছিলেন তাঁর ছেলে। বৃহস্পতিবার তা মাত্রা ছাড়ায়।

বৃহস্পতিবার রাতেও একই কাজ করেন বিশ্বনাথ বর্মন। কিন্তু সেইসময় ছেলে বাড়ি ফিরে আসেন। বাবার ওই রূপ দেখে মাথা ঠিক রাখতে পারেননি তিনি। হাতের সামনে থাকা ধারালো অস্ত্র দিয়ে এলোপাথাড়ি কুপোতে শুরু করেন বাবাকে। ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় বিশ্বনাথ বর্মনের। এরপর পুলিশের কাছে গিয়ে আত্মসমর্পণ করেন ছেলে।

১ জুলাই, ২০১৮/এসপি/এনটি

উপরে