NarayanganjToday

শিরোনাম

অস্ত্র ফেলে ব্যাট হাতে কেন


অস্ত্র ফেলে ব্যাট হাতে কেন

যুদ্ধবিধ্বস্ত একটি দেশ আফগানিস্তান। যুদ্ধের মৌসুম শুরু হওয়ার আগে আফগান তালিবান সৈনিকরা তাদের অস্ত্র (একে ৪৭) ফেলে আনন্দ উল্লাসে মেতে ওঠে ক্রিকেট খেলায়।

বর্তমান সময়ে ক্রিকেট সবার আবেগের জায়গা দখল করে নিয়েছে।ক্রিকেট এখন সবার কাছে বিনোদনের বড় মাধ্যম।

আর তারাই একমাত্র বিনোদন পায় ক্রিকেট খেলায়। এই ম্যাচগুলোর দর্শক হিসেবে থাকে তালিবান গ্রামবাসীরা।  সবাই রাগ অভিমান ভুলে একসঙ্গে ক্রিকেট খেলায় মেতে উঠে।  

একজন তালিবান কমান্ডার জানিয়েছেন, গত শীতকালে সৈনিকরা যে ক্রিকেট টুর্নামেন্ট আয়োজন করেছিলো সেখানে প্রচুর দর্শক হয়েছিলো।

কমান্ডার আরো জানিয়েছেন,আফগানিস্তানের খেলা হলে আমরা একসঙ্গে উপভোগ করি।ক্রিকেটকে আমরা ভালোবাসি। দারুণ আগ্রহ নিয়ে আমরা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে স্কোর চেক করি ও ফেসবুক ফলো করি যেখানে লাইভ আপডেট দেওয়া হয়।’

আফগানিস্তানে প্রথমবারের মতো ক্রিকেট খেলা শুরু হয়েছিলো ১৯ শতকে। সেখানে পাকিস্তানের ক্রিকেট প্রেমীদের নিয়ে একটি ক্রিকেট ম্যাচ আয়োজন করেছিলো আফগানরা।

একপর্যায়ে জানা যায়,তালিবানরা ফুটবল এবং ক্রিকেট খেলা নিষিদ্ধ করে দিয়েছিলো কেননা তাঁরা বিশ্বাস করতো এসব খেলা মানুষকে নামাজ থেকে দূরে সরিয়ে রাখে। কয়েক বছরে উন্নতি হয়েছে আফগান ক্রিকেটারদের।  

রশিদ খান, মোহাম্মদ নবী, মুজিব-উর-রহমান, মোহাম্মদ শাহজাদের মতো বিশ্ব মাতানো ক্রিকেটার উপহার দিয়েছেন আফগানরা।

৪ এপ্রিল,২০১৯/এমএ/এনটি

উপরে