NarayanganjToday

শিরোনাম

ওসির সামনেই খেলাফত মজলিসের নেতার গালে নারীর চড়


ওসির সামনেই খেলাফত মজলিসের নেতার গালে নারীর চড়

খেলাফত মজলিসের নেতা হাফেজ কবির হোসেনের বিরুদ্ধে এক বৃদ্ধার জমি দখলের অভিযোগ উঠেছে। জমি ফিরে পেতে একাধিকবার দেন দরবার করে উল্টো লাঞ্ছনার স্বীকার হয়েছে ওই বৃদ্ধা নারী।

বন্দর দক্ষিন লক্ষনখোলা এলাকায় এ ঘটনায় রোববার (২৭ অক্টোবর) সকালে ফাতেমা বেগম নামে ওই বৃদ্ধা জেলা পুলিশ সুপারের কাছে লিখিত অভিযোগ করেছেন।

ফাতেমা বেগম জানান, তার স্বামী সাহাব উদ্দিন মৃত্যু বরন করার পর দুই পুত্রকে নিয়ে স্বামীর বসত ভিটায় কোনো মতে জীবন যাপন করে আসছে। এরমধ্যে শাহাদাৎ নামে তার একপুত্র মাদকাসক্ত হয়ে পড়লে তাকে কাছে ডেকে নেয় হাফেজ কবির। এরপর নেশার টাকা দিয়ে বসত ভিটার দুই শতাংশ জমি লিখে নেয়। বিষয়টি লোকমুখে শুনে হাফেজ কবিরকে জিজ্ঞেস করলে সে ক্ষিপ্ত হয়ে জমির দখল ছেড়ে দিতে বলে। এক পর্যায়ে স্থানীয় গন্যমান্য ব্যাক্তিদের মাধ্যমে সে টাকা ফেরত দেয়ার চেষ্টা করলে হাফেজ কবির টাকা নিবেনা বলে আমার আরেক পুত্রকে মারধর করে।

তিনি বলেন, এ বিষয়ে বন্দর থানায় গিয়ে অভিযোগ করলে পুলিশ হাফেজ কবিরের বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা না নিয়ে উল্টো ঘুরাতে থাকে। এক পর্যায়ে পুলিশ থানায় ডাকলে উভয় পক্ষ থানায় উপস্থিত হয়। ওই সময় হাফেজ কবির জমি ছেড়ে দেয়ার কথা বলে হুমকি দেয়। তখন ওসির সামনেই ফাতেমা বেগম দুইটি চড় মারেন হাফেজ কবিরকে। এসময় ওসি উভয় পক্ষকে শান্ত করেন।

তিনি আরও জানান, এর জের ধরে ২৭ অক্টোবর ভোরে হাফেজ কবির আমাকে হত্যার উদ্দেশ্য গলা টিপে ধরে। এক পর্যায়ে ধস্তাধস্তি করে তার আক্রমন থেকে রক্ষা পেলেও ব্যাপক মারধরের স্বীকার হন ফাতেমা। এঘটনায় থানা পুলিশের সহযোগিতা না পেয়ে জেলা পুলিশ সুপারের কাছে তিনি অভিযোগ করেছেন। পুলিশ সুপার ওসিকে ব্যবস্থা গ্রহনের নির্দেশ দিয়েছেন।

এব্যাপারে হাফেজ কবির জানান, ফাতেমা বেগমের ঘটনা একে বারেই মিথ্যা বানোয়াট। ফাতেমার অভিযোগের তদন্ত আমিও চাই।

২৭ অক্টোবর, ২০১৯/এসপি/এনটি

উপরে