NarayanganjToday

শিরোনাম

মিলন মেহেদীসহ বিএনপি নেতাদের নামে মামলায় নিন্দা


মিলন মেহেদীসহ বিএনপি নেতাদের নামে মামলায় নিন্দা

নারায়ণগঞ্জ টুডে: বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদি মৎস্যজীবী দল কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারন সম্পাদক মিলন মেহেদী সহ জেলা ব্যাপী বিএনপি ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে একাধীক মামলার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন মহানগর মৎস্যজীবী দলের সাধারন সম্পাদক পারভেজ মল্লিক।

‘বিএনপি নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রমূলক এ মামলাগুলো দায়ের করা হয়েছে’ উল্লেখ করে বিবৃতিতে পারভেজ মল্লিক বলেন, আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে বিএনপির নেতৃবৃন্দের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রমূলক মিথ্যা ও বানোয়াট মামলা দায়ের দেশের শান্ত পরিবেশকে অশান্ত করার পায়তারা। এর পরিণতি ভাল হবে না। জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ধানের শীষের নিশ্চিত বিজয় ঠেকাতে সরকার আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে তাদের দলীয় লাঠিয়াল বাহিনীর মত ব্যবহার করছে। নিরীহ নেতৃবৃন্দের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রমূলক মামলা দায়ের এবং নেতাকর্মীদের বাসা-বাড়ীতে পুলিশী তল্লাশির নামে হয়রানী ও গ্রেফতার সরকারের নীল নকশার নির্বাচনের অংশ। সরকারকে ভুলে গেলে চলবে না, শহীদ জিয়ার সৈনিকেরা যেমন শান্ত থাকতে পারে, তেমনি প্রয়োজনে জ্বলে উঠতে পারে।

তিনি সরকারকে হুশিয়ার করে বলেন, অবিলম্বে দায়েরকৃত মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার ও গ্রেফতারকৃত নেতাকর্মীদের নি:শ^র্ত মুক্তির জন্য সরকারের প্রতি আহ্বান জানাচ্ছি। অন্যথায় যে কোন অনাকাঙ্খিত পরিস্থিতির দায়ভার সরকারকেই বহন করতে হবে বলে হুশিয়ারি করে দেন তিনি।

প্রসঙ্গত: গত ৭ সেপ্টেম্বর বৃস্পতিবার দিবাগত গভীর রাতে ফতুল্লা মডেল থানায় বিএনপির ২৮ জনের নাম উল্লেখ এবং ২০/২৫ জনকে অজ্ঞাত আসামী করে বিস্ফরোক আইনের ৪ ধারায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। উক্ত থানার উপ-পরিদর্শক কাজী এনামুল বাদি হয়ে মামলাটি দায়ের করেছেন। মামলা নং (২৮)। তারিখ-০৭-০৯-১৮।

মামলায় উল্লেখযোগ্য আসামীরা হলেন- সাবেক সাংসদ গিয়াস উদ্দিন, জেলা বিএনপির সভাপতি কাজী মনির, সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক মামুন মাহমুদ, যুগ্ম সম্পাদক এমএ আকবর, সাংগঠনিক সম্পাদক নজরুল ইসলাম পান্না, মৎসজীবী দল কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক মিলন মেহেদী, মহানগর যুবদলের আহবায়ক মাকসুদুল আলম খন্দকার খোরশেদ, ফতুল্লা থানা স্বেচ্ছাসেবক দলের আহবায়ক রিয়াদ মো. চৌধূরী ও থানা শ্রমিক দল শিল্পাঞ্চলিক শাখার সভাপতি মন্টু মিয়া ওরফে মন্টু মেম্বার ও থানা শ্রমিক দলের সাধারণ সম্পাদক তুষার আহাম্মেদ মিঠিু প্রমূখ।

এরপর বিএনপির নেতাদের বিরুদ্ধে ফতুল্লা থানায় আরোকটি মামলা দায়ের করা হয়। এভাবে রূপগঞ্জ, বন্দর, সোনারাগাঁও, সিদ্ধিরগঞ্জ ও নারায়ণগঞ্জ থানায় বিএনপি নেতাদের বিরুদ্ধে বেশ কয়েকটি মামলা দায়ের করা হয়। এই মামলাগুলোর আসামী প্রায় কয়েক শতাধীক বিএনপি নেতাকর্মী।
১০ সেপ্টেম্বর,২০১৮/এমএ/এনটি

উপরে