NarayanganjToday

শিরোনাম

মঙ্গলবার মুখোমুখি হচ্ছেন আইভী ও শামীম ওসমান!


মঙ্গলবার মুখোমুখি হচ্ছেন আইভী ও শামীম ওসমান!

মঙ্গলবার সাংগঠনিক সফরে নারায়ণগঞ্জে আসছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। তার সাথে আরও আসছেন ঢাকা বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান নওফেল এবং সাবেক পরাষ্ট্রমন্ত্রী দিপু মনি। তারা এদিন পার্টি অফিস থেকে শুরু করে শহরের নৌকার পক্ষে গণসংযোগ করবেন।

এদিকে কেন্দ্রীয় নেতাদের আগমণের সংবাদের স্থানীয় আওয়ামী লীগের মাঝে বিরাজ করছে উচ্ছ্বাস। তবে, এই উচ্ছ্বাসের সাথে কিছুটা শঙ্কাও মিশ্রিত হয়েছে বলে জানা গেছে। আর এই শঙ্কাটির নেপথ্যে রয়েছে ক্ষমতাসীন দলের বিবাদমান মেয়র আইভী ও শামীম ওসমান গ্রুপকে কেন্দ্র করে। কেননা, কেন্দ্রীয় নেতাদের আগমণকে কেন্দ্র করে এই দুই গ্রুপ এদিন মুখোমুখি হচ্ছেন। স্বাগত জানাবেন তারা আগত নেতাদের।

সূত্র জানায়, ওবায়দুল কাদের, নওফেল ও দিপু মনি মঙ্গলবার ১০ টার দিকে আসবেন দুই নং গেটে অবস্থিত আওয়ামী লীগের কার্যালয়ে। এখান থেকে তারা শহরব্যাপী নৌকার পক্ষে গণসংযোগ করবেন। কথা বলবেন সাধারণ মানুষের সাথে। নির্বাচনী প্রচারণার অংশ হিসেবে সাংগঠনিক সফর এটি। এ নিয়ে ইতোপূর্বে মহানগর আওয়ামী লীগ প্রস্তুতিমূলক সভাও করেছে।

এ প্রসঙ্গে তাদের সমস্ত প্রস্তুতি ইতোমধ্যে শেষ পর্যায়ে। এখন শুধু অপেক্ষার প্রহর গোণা বাকি, এমনটাই জানিয়েছেন মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাড. খোকন সাহা। তিনি জানিয়েছেন, প্রোগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের। তারপরও আমরা জেলার নেতৃবৃন্দদের দাওয়াত করেছি। মেয়র এবং সাংসদ থাকলেও থাকবে। তারা সবাই আমাদের মেহমান হিসেবে থাকবেন।

এদিকে জানা গেছে এদিন নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী পন্থী এবং সাংসদ শামীম ওসমান পন্থীরাও থাকবেন। এ ব্যাপারে উভয় পন্থী থেকেই পৃথক ভাবে ব্যাপক প্রস্তুতি গ্রহণ করা হয়েছে। এরমধ্যে এ লক্ষ্যে সাংসদ শামীম ওসমান সোমবার (২২ অক্টোবর) বিকেলের দিকে চাষাড়া রাইফেল ক্লাবে তার অনুসারিদের নিয়ে প্রস্তুতিমূলক সভাও করেন।

অপরদিকে সেতুমন্ত্রীর আগমন উপলক্ষে মেয়র আইভী পন্থীদের পক্ষ থেকে কোনো ধরণের প্রস্তুতিমূলক সভা করা না হলেও তারা এ ব্যাপারে গেল দুদিন ধরেই প্রস্তুতি নিচ্ছেন। এবং মঙ্গলবার মেয়রসহ তার অনুসারি নেতাকর্মীরা দলীয় কার্যালয়ে থাকবেন বলেও নিশ্চিত হওয়া গেছে।

এদিন মেয়রের থাকার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন তারই ছোট ভাই মহানগর যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক আহম্মদ আলী রেজা উজ্জ্বল। তিনি জানান, কেন্দ্রীয় নেতারা আসছে আমরাও থাকবো। আমাদের সকল নেতাকর্মী এদিন পার্টি অফিসে উপস্থিত থাকবেন। মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী থাকবেন কিনা জানতে চাইলে উজ্জ্বল বলেন, অবশ্যই আপা থাকবেন।

অপরদিকে শামীম ওসমান অনুসারি জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মীর সোহেল আলী জানান, কেন্দ্রীয় নেতাদের স্বাগত জানাতে আমরা প্রস্তুত। এদিন আমরা মিছিলসহ কেন্দ্রীয় নেতাদের স্বাগত জানাবো। সাংসদ শামীম ওসমান থাকবেন কিনা জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমরা আমাদের নেতার নেতৃত্বেই আমাদের দলের সাধারণ সম্পাদককে স্বাগত জানানো হবে।

এদিকে, দীর্ঘদিন ধরেই নারায়ণগঞ্জ আওয়ামী লীগের রাজনীতি দুই ধারায় বিভক্ত। এর একটি আইভী ও অপরটি শামীম ওসমান পন্থী হিসেবে পরিচিত। অনেকেই তাদের এই দুই পন্থীকে উত্তর ও দক্ষিণ মেরু বলেই অখ্যায়িত করে থাকেন। আর এই দুই মেরুর মধ্যে দীর্ঘদিন ধরেই নানা কারণে বাদানুবাদ। সর্বশেষ হকার ইস্যু নিয়ে উভয় পক্ষের মধ্যে হয়েছিলো সংঘর্ষ। এ ঘটনায় মেয়র আইভী আহতও হয়েছিলেন।

সূত্র বলছে, বিবাদমান ওই দুই গ্রুপ মুখোমুখি হলে অপ্রীতিকর কোনো ঘটনা ঘটতে পারে, এমন আশঙ্কাই দানা বাঁধে সাধারণ নেতাকর্মীদের মাঝে। আর তাই মঙ্গলবার দুই গ্রুপের দুই নেতা আইভী ও শামীম ওসমান মুখোমুখি হবেন, এ নিয়ে কিছুটা সংশয় দেখা দিয়েছে দলটির সাধারণ নেতাকর্মীসহ নগরবাসীর মাঝে।

তবে, মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাড. খোকন সাহা অপ্রীতিকর কোনো ঘটনার আশঙ্কা নাকচ করে দিয়েছেন। তিনি বলেন, এমন কোনো ঘটনা ঘটবে না। কাউকে কোনো ধরণের বিশৃঙ্খলা করতেও দেয়া হবে না। তারা থাকবেন মহানগর আওয়ামী লীগের মেহমান হিসেবে।

অপরদিকে, দলটির সাধারণ নেতাকর্মীদের মতে, তাদের দলের এই দুই নেতা যদি তাদের মধ্যকার বিরোধ মিটিয়ে এক কাতারে আসতে পারতেন, তাহলে নারায়ণগঞ্জ আওয়ামী লীগ হতো দেশের মধ্যে রোল মডেল। এবং এখানে উন্নয়ণ কর্মকা-ও সংগঠিত হতো সব থেকে বেশি। তারা প্রত্যাশা করেন, শামীম ওসমান ও আইভীর মধ্যে ছোট ভাই, বড় ভাইয়ের সম্পর্কটাই সব কিছুকে ছাপিয়ে উত্তরে যাবেন। এবং তারা দুজন এক সাথে হলে শঙ্কা নয়, যাতে নেতাকর্মীদের মাঝে উৎসবের আমেজ বিরাজ করে, এমনটাই প্রত্যাশা তৃণমূলের।

২২ অক্টোবর, ২০১৮/এসপি/এনটি

উপরে