NarayanganjToday

শিরোনাম

না.গঞ্জের মনোনয়ন প্রত্যাশীদের যা বললেন তারেক রহমান


না.গঞ্জের মনোনয়ন প্রত্যাশীদের যা বললেন তারেক রহমান

নির্বাচনটাকে একটা আন্দোলন হিসেবে নিতে নারায়ণগঞ্জ মনোনয়ন প্রত্যাশীদের নির্দেশ দিয়েছেন বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান। বুধবার (২১ নভেম্বর) রাত পৌনে দশটার দিকে জেলার মনোনয়ন প্রত্যাশীদের সাক্ষাৎকার পর্বে ভিডিও কনফারেন্সেরম মাধ্যমে এই নির্দেশনা দেন তিনি।

বিএনপির চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার গুলশান কার্যালয়ে মনোনয়ন প্রত্যাশীদের সাক্ষাৎকার পর্বটি শেষ হয়। এসময় মনোনয়ন বোর্ডের এবং দলীয় মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, ব্যারিস্টার মওদুদ আহমেদ, ড. মঈন খান, ড. খন্দকার মোশারফ হোসেন, নজরুল ইসলাম খান উপস্থিত ছিলেন।

সাক্ষাৎকারে উপস্থিতি সূত্র থেকে জানা গেছে, তারেক রহমান নারায়ণগঞ্জের মনোনয়ন প্রত্যাশীদের উদ্দেশ্যে প্রায় ১৭ মিনিট বক্তব্য রাখেন। তিনি তার বক্তব্যে নানা রকম দিক নির্দেশনা দিয়েছেন মনোনয়ন প্রত্যাশীদের। একই সাথে যাকেই মনোনয়ন দেওয়া হোক এর বিরোধীতা করে কেউ যাতে মনঃক্ষুন্ন না হন এবং ঐক্যবদ্ধভাবে ভোটের মাঠে কাজ করার প্রতিশ্রুতিও নেন।

তারেক রহমান বলেছেন, যারা মনোনয়ন প্রত্যাশী তারা সবাই যোগ্য। কিন্তু নির্বাচনের জন্য এখান থেকে প্রতিটি আসনে একজনকেই মনোনীত করতে হবে। আর সেটি করা হলে আপনার এ নিয়ে কেউ ক্ষুব্ধ হবেন না। বিরোধীতা করবেন না। আমি আশা করবো, আমরা যার হাতেই দলীয় প্রতীক তুলে দেবো তিনি হবেন দলের প্রার্থী, দলের মনোনীনত প্রার্থী। সুতরাং সবাইকে তার পক্ষেই কাজ করতে হবে।

তিনি বলেন, মনে রাখবেন, এটি একটি বিল্পব। ভোট বিপ্লবের মাধ্যমে দেশের গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারে ঐক্যবদ্ধভাবে থেকে বিজিয়ের ফসল ঘরে তুলতে হবে। সবাই চেষ্টা করবেন, সাধারণ মানুষ যাতে ভোট কেন্দ্রে যেতে পারে, সে ব্যবস্থা করবেন। একই সাথে ভোট কেন্দ্র পাহারাও দিতে হবে। শেষ পর্যন্ত আমাদের মাঠে থাকতে হবে এবং বিজয়ের ফসল ঘরে তুলতে হবে।

নারায়ণগঞ্জের মনোনয়ন প্রত্যাশীদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন জানা গেছে, অ্যাড. তৈমূর আলম খন্দকার, সাবেক সংসদ সদস্য মুহাম্মদ গিয়াসউদ্দিন, মনিরুজ্জামান মনির, মোস্তাফিজুর রহমান ভূইয়া দিপু, সাবেক সংসদ সদস্য আতাউর রহমান আঙ্গুর, অ্যাড. আবুল কালাম,নজরুল ইসলাম আজাদ, সাবেক সংসদ সদস্য রেজাউল করীম, আজাহারুল ইসলাম মান্নান, খন্দকার আবু জাফর, এটিএম কামাল, অলিউর রহমান আপেল, শাহ আলম, অধ্যাপক মামুন মাহমুদ, মনিরুল আলম সেন্টু, মাসুকুল ইসলাম রাজীব, রুহুল আমিন শিকদার, শহিদুল ইসলাম টিটু, খসরু পুত্র সুমন, শহিদুর রহমান স্বপন, নজরুল ইসলাম টিটু, মাকসুদুল আলম খন্দকার খোরশেদ, মনিরুল ইসলাম সজল, মো. রিয়াদ, এমএইচ মামুন।

২১ নভেম্বর, ২০১৮/এসপি/এনটি

উপরে