NarayanganjToday

শিরোনাম

উই ডোন্ট ডিপেন্ড অন দ্য পুলিশ : শামীম ওসমান


উই ডোন্ট ডিপেন্ড অন দ্য পুলিশ : শামীম ওসমান

‘দেশের তিনশো এমপির মধ্যে নিজেকে সব থেকে ভাগ্যবান’ মন্তব্য করে নিজের নেতা কর্মীদের স্যালুট জানিয়ে সাংসদ শামীম ওসমান বলেন, আমাকে একটু সময় দিন। উঠতে দিন। আমি সব কর্মীদের বাড়ি বাড়ি যাবো। আপনাদের পাশে থাকতে চাই। একটু সময় লাগবে হয়তো। ওয়ার্ড লেভেলের নেতাকর্মী সবার খোঁজ খবর নিতে বাড়ি বাড়ি যাবো।

মঙ্গলবার (২৬ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে বাংলা ভবনে ফতুল্লা থানা আওয়ামী লীগ ও সহযোগি সংগঠনের উদ্যোগে আলোচনা ও প্রস্তুতি সভায় ওই কথা বলেন তিনি। স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে ২ মার্চ শহরের জনসভা উপলক্ষে এই প্রস্তুতি সভার আয়োজনা করা হয়।

শামীম ওসমান বলেন, আমাদের নারায়ণগঞ্জকে শুধু শুধু বদনাম দেওয়া হয়। অন্যান্য জায়গায় আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি আরও খারাপ। নারায়ণগঞ্জ অনেক ভালো। বাইরের থেকে ঘটনা ঘটায়। সেভেন মার্ডার হয়, এই মার্ডার হয়, ওই মার্ডার হয়, ত্বকী মার্ডার হয়। মার্ডারের অংশ বাইর করলেইতো হয়। বাইর করুক না। আমিও চাই বাইর হোক। নারায়ণগঞ্জের মানুষ কিছু করে না। খেলায় বাইরের থেকে আইসা। ধান্ধা কইরা দিয়া চইলা যায় সবাই। আর আমরা ভাইয়েরা ভাইয়েরা মারামারি কইরা মরি।

তিনি বলেন, আমি এটাও চাই না বিএনপির কোনো নিরাপরাধ লোকের বিরুদ্ধে মামলা হোক। আমি চাই তাদের নামে মামলা হলে খালাশ দিয়ে দেওয়া হোক। এই নারায়ণগঞ্জটা আমাদের সবাইর। সবাই মিলেই নারায়ণগঞ্জটাকে সাজাতে চাই। কারণ, আমাদের বভিষ্যৎ প্রজন্ম যাতে আমাদের নাম নিতে পারে। তারা যাতে বলতে পারে ‘আমরা নারায়ণগঞ্জটাকে সুন্দর কইরা দিয়া গেছে’।

২ মার্চের জনসভার আয়োজন করার কারণ ব্যাখ্যা দিতে গিয়ে শামীম ওসমান বলেন, স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে মিটিং করমু এতে ঢোলঢক্কর পেটানোর কি দরকার আছে। কিন্তু পেটাইতাছি কেন? জনগণরে আমরা মেসেজ দিতে চাই। আমরা মেসেজ দিতে চাই যে, আওয়ামী লীগ তোমার সাথে আছে, তুমি ভোট দিলেও আছে না দিলেও আছে। আমরা প্রত্যেকটা কর্মী মাঠে নামতেছি। কেন নামতেছি, ‘উই ডোন্ট ডিপেন্ড অন দ্য পুলিশ’ কাউরো উপর আমরা ডিপেন্ড করবো না। আমরা আমাদের উপর ডিপেন্ড। এটা আমাদের নারায়ণগঞ্জ।

আমার বিরুদ্ধে লিখুক আমার কোনো সমস্যা নাই মন্তব্য করে তিনি বলেন, আমরা নারায়ণগঞ্জ প্রেসক্লাবকে ডাকবো, পেপার্স ওয়ানার্স এসোসিয়শনকে ডাকবো, সকল সাংবাদিকদের ডাকবো, বারকে ডাকবো, সকল ব্যবসায়ী ইউনিটকে ডাকবো। এখানেই আমরা মরবো। হয় মাসদাইর নয়তো পাইকপাড়া নয়তো আরেক কবরস্থানে দাফন হইবো। সো এই জায়গা আমাদের। কেউ আইসা এখানে সেভেন মার্ডার কইরা যাইবো, তার দায়দায়িত্ব আমরা নেবো না। আমরা আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির উন্নতি চাই কিন্তু ইয়াবা পকেটে ঢুকাইয়া কইবেন তোরে লইয়া যামুগা, তা হইতে দেবো না। ও হবে না। আমরা বুঝি সব কিছুই। ও হবে না।

শামীম ওসমান বলেন, জনগণকে আমাদেরই শান্তি দিতে হবে। জনগণের পাশে দাঁড়াতে হবে। তাদের মেসেজ দিতে হবে, আমরা জনগণেরই পার্ট। আমরা শেখ হাসিনার কর্মী, এই মেসেজটা জনগণকে দিতে হবে। সো জনগণ ভয় পাবেন না, আমরা বঙ্গবন্ধুর কর্মী আমরাই স্বাধীনতার জন্য লড়াই করেছি। আমরা নিষিদ্ধপল্লী উঠিয়েছি, আল্লাহ শাসন কায়েম করেছি। জনগণ ভয় পাবেন না, আমরা সন্ত্রাসী, মাদক, ঘুষখোরের বিরুদ্ধে ২ তারিখে মাঠে নামার ঘোষণা দেবো।

২৬ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯/এসপি/এনটি

উপরে