NarayanganjToday

শিরোনাম

শামীম ওসমানকে নিয়ে ভাববার সময় নেই আইভীর!


শামীম ওসমানকে নিয়ে ভাববার সময় নেই আইভীর!

প্রধানমন্ত্রীর বরাবর মেয়র আইভীর বিরুদ্ধে এক গাদা অভিযোগ উত্থাপন করে স্মারকলিপ প্রদান করেছে নারায়ণগঞ্জের সচেতন নাগরিক সমাজের ব্যানারে শামীম অনুসারিরা। তবে এ নিয়ে এখনই কোনো মন্তব্য করতে রাজি নন তিনি।

বুধবার (২০ মার্চ) গণমাধ্যমে স্মারকলিপি প্রসঙ্গে দেওয়া পৃথক দুটি প্রতিক্রিয়ায় ওই কথা জানিয়েছেন। একই সাথে তিনি জানিয়েছেন, শামীম ওসমানকে নিয়ে ভাববার কোনো সময় তার নেই।

শামীম ওসমান প্রসঙ্গে আইভী বলেন, উনার (শামীম ওসমান) যা মনে আসুক বলুক। নারায়ণগঞ্জের মানুষ ওনার সম্বন্ধে জানে। উনি সত্যকে মিথ্যা আর মিথ্যাকে সত্য বানাতে পটু। তাকে নিয়ে বলার কিংবা ভাবার কোনো সময় আমার নেই।

তিনি জানান, স্মারকলিপির বিষয়গুলো আমি পর্যবেক্ষন করে দেখছি। অনেকেই খোঁচানোর চেষ্টা করছেন এবং করবেন। আমি উন্নয়ন করতে চাই। এ বিষয়ে কোনো মন্তব্যই করবো না। নারায়ণগঞ্জবাসী, দেশবাসী উনার (শামীম ওসমান) বিচার করবেন।

প্রসঙ্গত, নারায়ণগঞ্জের রাজনীতিতে শামীম ওসমান ও আইভী দুই ভাগে বিভক্ত হয়ে ব্যক্তিগত কোন্দলে দীর্ঘদিন ধরেই জড়িয়ে আছেন। এ নিয়ে শহরে প্রায় সময়ই উদ্ভুদ্ধ পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে। এক পক্ষ আরেক পক্ষকে লক্ষ্য করে নানা ধরণের আপত্তিকর মন্তব্যও করেন বিভিন্ন সময়। এর থেকে কেউ কারো থেকে একদম কম যান না। একে অপরকে নিয়ে তারা নানা ধরণের কুৎসা রটাতেও দ্বিধাবোধ করেননি। যা নারায়ণগঞ্জবাসী দীর্ঘদিন ধরেই প্রত্যক্ষ করছে।

সূত্র বলছে, শামীম ওসমান ও আইভীর মধ্যে যে দ্বন্দ্ব তা পুরোপুরিই ব্যক্তিগত। তারা উভয়ই চাচ্ছে নারায়ণগঞ্জের একক কতৃত্ব। আর এ জন্য একজন আরেকজনকে কোণঠাসা করতে এবং মাঠ থেকে সরাতে যত আয়োজন করছেন বিভিন্ন সময় বিভিন্ন ভাবে। আর তাদের এই দ্বন্দ্বের কারণে স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীরাও বিব্রত এবং বিভক্ত। মূলত এই দুই নেতার এই ব্যক্তিগদ রেশারেশিতে স্থানীয় আওয়ামী লীগ তিক্তবিরক্ত।

সর্বশেষ ত্বকী হত্যার ৬ বছরে নগরীর রাসেল পার্কে শিশু সমাবেশে বক্তব্য রাখতে গিয়ে ওসমান পরিবার নিয়ে তীব্র বিষোদগার করেন মেয়র আইভী। এদিন তিনি স্পষ্ট করেই বলেছিলেন ‘ওসমান পরিবার খুনী পরিবার’। এরপরই ক্ষুব্ধ হয়ে উঠেন ওসমান পরিবার অনুসারিরা। ফলশ্রুতিতে মঙ্গলবার (১৯ মার্চ) নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসক রাব্বী মিয়ার মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী বরাবর মেয়র আইভীর বিরুদ্ধে স্মারকলিপি প্রদান করে এই পরিবারের অনুসারিরা।

স্মারকলিপিতে মেয়র আইভীর বিরুদ্ধে নারায়ণগঞ্জে অস্থিতিশীল পরিস্থিতি সৃষ্টির পাঁয়তারার অভিযোগসহ জামাতের সাথে সম্পর্ক এবং সুশীল সমাজের প্রতিনিধিদের ভাড়া করে এনে সরকারের বিরুদ্ধে কুৎসা রটানোর অভিযোগ তোলা হয়। পাশাপাশি ২০০১ সালের ১৬ জুনের মতো আবার কোনো বোমা হামলার আশঙ্কা প্রকাশ করা হয়েছে।

২০ মার্চ, ২০১৯/এসপি/এনটি

উপরে