NarayanganjToday

শিরোনাম

দেনাদার-পাওনাদারদের সমন্বয়ে গঠিত জেলা বিএনপি!


দেনাদার-পাওনাদারদের সমন্বয়ে গঠিত জেলা বিএনপি!

নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপির পূর্ণাঙ্গ কমিটি নিয়ে দলটির নেতাকর্মীদের মাঝে তীব্র ক্ষোভ ও অসন্তোষ বিরাজ করছে। কাজী মনিরুজ্জামান ও মামুন মাহমুদের স্বেচ্ছাচারিতার কারণে দলের মধ্যে এমন ক্ষোভ বিরাজ করছে। ফলে ধারণা করা হচ্ছে এই ক্ষোভ যে কোনো সময় বিস্ফোরিত হতে পারে। নাজেহাল হতে পারেন দলটির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক।

সূত্র বলছে, পূর্ণাঙ্গ কমিটিতে ২০৫ জনকে স্থান দেওয়া হলেও সেখানে যাদেরকে অন্তর্ভূক্ত করা হয়েছে তাদের অধিকাংশকেই চেনে না কেউ। কাজী মনির ও  মামুন মাহমুদ নিজেদের খেয়াল খুশি মতো পছন্দের লোক দ্বারা এই কমিটি সাজিয়েছেন বলে অভিয়োগ উঠেছে। এমনকি দলে অন্তর্ভূক্তি করে বাণিজ্য করার অভিযোগও উঠেছে মামুন মাহমুদের বিরুদ্ধে।

দলটির অনেক নেতাই এই কমিটি মেনে নিতে পারছেন না। ইতোমধ্যে জেলা বিএনপির কমিটিতে থাকা অনেকেই এই কমিটি বিলুপ্ত করে কমিটি পুণর্গঠনের দাবি তুলেছেন। এরমধ্যে দলটির সাংগঠনিক সম্পাদক মাসুকুল ইসলাম রাজীব এই কমিটিকে দেনদার, পাওনাদার আর ভূয়া পদধারীদের সমন্বয়ে গঠন করা হয়েছে দাবি করে বলেছেন, এই কমিটি আমি মানি না।

রাজীব বলেন, “দেনাদার-পাওনাদার আর আওয়ামী লীগের এজেন্ট এবং ভূয়া ব্যক্তিদের সমন্বয়ে গঠন করা বিএনপির এই পূর্ণাঙ্গ কমিটি আমি মানি না। এই কমিটি নিয়মতান্ত্রিক, গঠনতন্ত্র মোতাবেক হয়নি।”

অপরদিকে জেলা বিএনপির যুববিষয়ক সম্পাদক আশরাফুল হক রিপনও কমিটি পুর্ণগঠনের দাবি জানিয়েছেন। তিনি তার ফেসবুক ওয়ালে ১৮ জানুয়ারি একটি পোস্টের মাধ্যমে এমন দাবি জানান। তার মতে, ‘বিএনপি ও অংগসংগঠন পু্র্ণগঠন করা অত্যন্ত জরুরী।’

১৩ এপ্রিল, ২০১৯/এসপি/এনটি

উপরে