NarayanganjToday

শিরোনাম

রশিদকে নৌকা দেওয়ায় প্রধানমন্ত্রীর প্রতি বাদলের কৃতজ্ঞতা


রশিদকে নৌকা দেওয়ায় প্রধানমন্ত্রীর প্রতি বাদলের কৃতজ্ঞতা

বন্দর উপজেলা নির্বাচনে মুক্তিযোদ্ধা এমএ রশিদেও হাতে নৌকা প্রতীক তুলে দেওয়ায় আওয়ামী লীগের সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন ফতুল্লা থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি এম সাইফউল্লাহ বাদল। একই সাথে তিনি নৌকা প্রতীক পাওয়ায় রশীদকেও অভিনন্দ জানান।

সোমবার (২০ মে) এক প্রদিক্রিয়ায় সাইফউল্লাহ বাদল ওই কথা বলেন। তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বুঝেন কখন কাকে মূল্যায়ন করতে হবে। তিনি পরিক্ষীত, ত্যাগী নেতাকর্মীদের সময় মতো ঠিকই মূল্যায়ন করেন। এমএ রশীদের ক্ষেত্রে সেটি আবারও প্রমাণ হলো।

তিনি বলেন, উড়ে এসে কেউ মনোনয়ন চাইলেই তাকে সেটি তিনি দেননা। তিনি ত্যাগী, পরিক্ষীত পোড় খাওয়া যোগ্য নেতৃত্বের মূল্যায়ন করেন। যার কারণে তিনি বন্দর উপজেলা নির্বাচনে এম রশিদের মতো বঙ্গবন্ধুর আদর্শের সৈনিক ত্যাগী একজনকে প্রার্থী ঘোষণা করেছেন। এজন্য আমরা তার কাছে কৃতজ্ঞ, তার দৃঢ়চেতা নেতৃত্বের প্রতি আস্থাশীল এবং ফতুল্লা থানা আওয়ামী লীগের সকল নেতাকর্মীর পক্ষ থেকে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি কৃতজ্ঞচিত্তে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করছি।।

এসময় তিনি বলেন, এম এ রশিদের মত প্রবীন ও পরীক্ষিত নেতার হাতে দলীয় মনোনয়ন তুলে দিয়ে তিনি আবারো প্রমান করলেন কাকে মূল্যায়ন করতে হয়, আর কাকে করতে হয় না। আর এ কারনেই বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ এত শক্তিশালী।

সাইফউল্লাহ বাদল আরও বলেন, প্রধানমন্ত্রী তার কাজ করেছেন। যোগ্য ব্যক্তির হাতে নৌকা তুলে দিয়েছেন। এখন মাঠেন নেতাকর্মীদের দায়িত্ব শেখ হাসিনার আস্থার প্রতিফলন ঘটাতে এমএ রশিদেও পক্ষে নির্বাচনী মাঠে থেকে নৌকার জয় নিশ্চিত করা। আমি বন্দরের প্রতিটি নৌকা প্রেমিককে আহ্বান করবো, মাঠে থাকুন, নৌকার জয় নিশ্চিত করুন। জয় আমাদেরই হবে।

প্রসঙ্গত, গত ৯ মে বন্দর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষনা করা হয়। ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী আগামী ১৮ জুন নির্বাচনের তারিখ নির্ধারণ করা হয়েছে। এছাড়া মনোনয়ন জমাদানের শেষ তারিখ ২১ মে, যাচাই-বাছাই ২৩ মে, প্রথ্যাহারের শেষ দিন ৩০ মে এবং প্রতিক বরাদ্ধ দেয়া হবে ৩১ মে।

জেলা আওয়ামী লীগের শীর্ষ নেতারা এক বৈঠকে জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আবু সুফিয়ান, বন্দর থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি এম এ রশিদ এবং মদনপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও আওয়ামী লীগ নেতা এম এ সালামের নাম প্রার্থী তালিকায় বাছাই করে যুক্ত করেন এবং তা কেন্দ্রে পাঠান।

এরমধ্যে রোববার (১৯ মে) বিকেলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকারি বাসভবন গণবভনে স্থানীয় সরকার নির্বাচনী মনোনয়ন বোর্ডের সভায় এম এ রশিদকে নৌকার মাঝি হিসেবে ঘোষণা করা হয়। এই ঘোষণার মধ্য দিয়ে মনোনয়ন থেকে ছিটকে পড়েন সুফিয়ান ও সালাম।

২০ মে,২০১৯/এমএ/এনটি  

উপরে