NarayanganjToday

শিরোনাম

ফতুল্লায় কোনো সন্ত্রাস ও চাঁদাবাজ থাকতে পারবে না : বাদল


ফতুল্লায় কোনো সন্ত্রাস ও চাঁদাবাজ থাকতে পারবে না : বাদল

সন্ত্রাস, চাঁদাবাজ ও মাদক ব্যবসায়ীদের ফতুল্লার মাটিতে ঠাঁই হবে না বলে ঘোষনা দিয়েছেন ফতুল্লা থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও কাশিপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এম সাইফউল্লাহ বাদল।

তিনি বলেন, আমি জানি মুসলিমনগর এলাকায় চাঁদাবাজি হয়। এখানে ড্রেন করতে চাঁদা দিতে হয় এবং বাড়ি নির্মান করলেও চাঁদা দিতে হয়। আমি বহুদিন ধরে অসুস্থ্ থাকার কারনে আমার ইচ্ছে থাকা সত্বেও এসব বিষয় ভাল ভাবে খোঁজখবর নিতে পারিনি। এখন আল্লাহর রহমতে মোটামুটি সুস্থ্ আছি। আমি ফতুল্লা থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি হিসাবে বলতে চাই আজ থেকে মুসলিমনগরসহ পুরো ফতুল্লা এলাকায় সন্ত্রাস ও চাঁদাবাজ থাকতে পারবে না। আমরা সন্ত্রাস ও চাঁদাবাজদের নিয়ন্ত্রন করবো।

বুধবার (২১ আগস্ট) দুপুরে ফতুল্লার মুসলিমনগর এলাকায় স্থানীয় পঞ্চায়েত প্রধান ফজলুল হক সরকারের বাড়ির সামনে মুসলিমনগর পঞ্চায়েত কমিটির উদ্দ্যেগে ১৫ আগস্ট জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের শাহাদাত বার্ষিকী ও ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলায় শহীদদের স্মরণে আলোচনা সভা ও কাঙ্গালীভোজ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি আরো বলেন, মুসলিমনগর এলাকার মুরুব্বীরাই ফতুল্লা থানা ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক এম এ মান্নানকে প্রতিষ্ঠা করেছে। আর মান্নান সেই এলাকার মুরুব্বীদের অসম্মান করবে সেটা মেনে নেয়া যায় না। আমি ফতুল্লা থানা আওয়ামীলীগের সভাপতি হলেও আমার জন্য কাশিপুরে পায়ের তলায় মাটি না থাকে তাহলে আমার অস্তিত্ব থাকবে না। তাই মান্নানকেও এলাকাবাসীর সাথে মিলে মিশে থাকতে হবে। নিজের এলাকায় যদি কারো অবস্থান না থাকে তাহলে রাজনৈতিক ভাবে ব্যর্থ হয়ে যাবে। মুসলিমনগর এলাকার মুরুব্বীদের সাথে মান্নানের যে সমস্যা সৃষ্টি হয়েছে সবাইকে সাথে নিয়ে তা সমস্যার সমাধান করা হবে।

সাইফউল্লাহ বাদল আরও বলেন, স্বাধীনতার পরাজিত শক্তি শুধু ১৫ আগষ্টে জাতির জনককে হত্যার মধ্য দিয়ে চুপ করে বসে থাকেনি। ২০০৪ সালে ২১ আগষ্ট জাতির জনকের কন্যা শেখ হাসিনাকে হত্যার চেষ্টা করেছে। কিন্তু আল্লাহ তাঁকে বাঁচিয়েছেন।  তারেক জিয়া, তৎকালীন স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী লুৎফজ্জামান বাবর ও তার সহযোগীরা ওইদিন যা চেয়েছিল তা হয়নি। আর তাদের স্বপ্ন কখনো বাংলার জমিনে বাস্তবায়ন হবেও না। জাতির জনকের সমস্ত স্বপ্নগুলোকে একে একে পূরণ করছেন মাননীয় প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনা। তাঁর নেতৃত্বেই দেশ আজ উন্নয়নের রোল মডেলে পরিণত হয়েছে।  

অনুষ্ঠানে মুসলিমনগর এলাকায় স্থানীয় পঞ্চায়েত প্রধান ফজলুল হক সরকারের সভাপতিত্বে ফতুল্লা থানা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মোশারফ হোসেনের সঞ্চালনায় বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন ফতুল্লা থানা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক শওকত আলী, সিনিয়র সহসভাপতি আসাদুজ্জামান, সাংগঠনিক সম্পাদক বদিউজ্জামান বদু প্রমুখ।       

এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগ নেতা রঞ্জিত ম-ল, মতিউর রহমান মতি, কামালউদ্দিন মাতবর, আজিমউদ্দিন মাতবর, শফিকুল ইসলাম, ইদ্রিস আলী মাতবর, এনায়েতনগর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি রাজ্জাক মাষ্টার, এনায়েতনগর ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য সামসুল হক, আওয়ামী লীগ নেতা আতাউর রহমান জীবন, জাতীয় পার্টি নেতা হাজী আওলাদ হোসেন, ফতুল্লা ছাত্রলীগের সহসভাপতি শরীয়ত উল্লাহ বাবু, বঙ্গবন্ধু সৈনিক লীগ নেতা ইব্রাহিম খলিল, ছাত্রলীগ নেতা সামসুজ্জামান খোকন, যুবলীগ নেতা সোহেল মিয়া, ইব্রাহিম, খলিলুর রহমান টিটু, স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা নোমান আহাম্মদ, নাজমুল হোসেনসহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ।

২১ আগস্ট, ২০১৯/এসপি/এনটি

উপরে