NarayanganjToday

শিরোনাম

নারায়ণগঞ্জে আলোচনায় এসপি সাইদুর


নারায়ণগঞ্জে আলোচনায় এসপি সাইদুর

নারায়ণগঞ্জ থেকে বদলী হয়েছেন পুলিশ সুপার হারুন অর রশীদ। এখনও ঠিক হয়নি এখানে কে হচ্ছেন তার স্থলাভিষিক্ত। তবে, প্রায় নিশ্চিত হয়ে আছেন মুহাম্মদ সাইদুর রহমান খান। তিনিই এই জেলার নতুন এসপি, এমনটাই এখন অনেকটা নিশ্চিত বলে বিভিন্ন সূত্রে জানা গেছে।

সূত্র বলছেন, ১৯ তম বিসিএস ক্যাডার মুহাম্মদ সাইদুর রহমান খান ইতোপূর্বে নারায়ণগঞ্জে অ্যাডিশনাল এসপি হিসেবে কর্মরত ছিলেন। বর্তমানে তিনি রয়েছেন গোপালগঞ্জ জেলার পুলিশ সুপার হিসেবে। এখানে তিনি গত ২০১৭ সালের ১৩ মার্চ যোগদান করেন। কর্মদক্ষতা আর সততায় তিনি পুলিশ প্রশাসনে বেশ আলোচিত।

সূত্র আরও বলছে, কর্তব্যপরোয়ান পুলিশের ওই কর্মকর্তা অপরাধ দমনের ক্ষেত্রে কে কোন দল করেন, কে কার লোক, সে হিসেব কষেন না। গোপালগঞ্জেও তিনি এই স্বাক্ষর রখেছেন। এর পূর্বেও তিনি পুলিশ প্রশাসনে সততা ও সাহসিকতার প্রমাণ দিয়েছেন। তাই বলা হচ্ছে, এসপি হারুন অর রশীদের বদলীতে এখন যারা উচ্ছ্বসিত হচ্ছেন তাদের উচ্ছ্বাস ফুটো বেলুনের মতো মিইয়ে যাবে খুব শিগগিরই।

জানা গেছে, নারায়ণগঞ্জ জেলায় যোগদানের পর বেশ কিছু সাহসিকতার স্বাক্ষর রেখেছিলেন হারুন অর রশীদ। প্রভাবশালী অনেক অপরাধীদেরকেই গ্রেফতার ও তাদের দখলে থাকা অন্যের জমি, ফ্ল্যাট উদ্ধার করেছিলেন। পাশাপাশি অপরাধ, অভিযোগ থাকায় চারজন কাউন্সিলরকেও গ্রেফতার করেছিলেন তিনি। গ্রেফতার হয়েছিলো চাঁদাবাজ, সন্ত্রাসীরাও যারা ক্ষমতাসীন দলের নাম ভাঙিয়ে এসব অপকর্ম করতেন।

একটি গোয়েন্দা সংস্থা বলছে, মুহাম্মদ সাইদুর রহমান খান আসুক আর যিনিই আসুক, অপরাধ দমনে হারুন অর রশীদ যে ধারা চালু করে গেছেন নারায়ণগঞ্জে, সে ধারা অব্যাহত থাকবে। সরকারের উচ্চ পর্যায় থেকেই এমন নির্দেশনা রয়েছে। কেননা, নারায়ণগঞ্জটাকে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ একটি শহর হিসেবে দেখা হচ্ছে। ফলে, এখানকার অপরাধ দমন করার মতো সাহসিকতা ও নীতি রয়েছে এমন কাউকেই এখানে পাঠানো হবে। অপরাধ দমনের ক্ষেত্রে দল, ব্যক্তি বিবেচনা না করার মতো নীতি তার অবশ্যই থাকতে হবে।

সূত্রটি বলছে, নারায়ণগঞ্জের জন্য শুরুতে পাঁচজনের নাম উঠে আসে। এরমধ্যে প্রথম সারিতে ছিলেন মুন্সিগঞ্জ, গাজিপুরসহ আরও কয়েকটি জেলার এসপি। এরমধ্যে প্রথম দিকেই ছিলেন মুন্সিগঞ্জের এসপি মোহাম্মদ জায়েদুল আলম। তবে, শেষতক মুহাম্মদ সাইদুর রহমান খান নারায়ণগঞ্জে আসছেন, এটা এখন অনেকটাই নিশ্চিত। তবে, এখন দেখার পালা শেষমেশ কে আসেন এখানে। সাধারণ মানুষ বলছেন, যিনিই আসুক না কেন, অপরাধ দমনে তিনি যেন সাহসী হয় এবং কারো বগলে চলে না যায়।

৯ নভেম্বর, ২০১৯/এসপি/এনটি

উপরে