NarayanganjToday

শিরোনাম

দক্ষ সংগঠক শামীম ওসমান, তার কর্মী হিসেবে গর্বিত : মতি


দক্ষ সংগঠক শামীম ওসমান, তার কর্মী হিসেবে গর্বিত : মতি

দলমত নির্বিশেষে প্রায় সবার সাথেই রয়েছে ভালো সম্পর্ক। সবার সাথে নিজেও মিশেন হাসিমুখে। বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে বুকে ধারণ করে আওয়ামী লীগের রাজনীতিতে যুক্ত হয়ে বর্তমানে তিনি সিদ্ধিরগঞ্জ যুবলীগের কাণ্ডরি। তিনি মতিউর রহমান মতি।

দ্বিতীয় নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন নির্বাচনে ৬ নং ওয়ার্ড থেকে কাউন্সিলর হিসেবে নির্বাচন করেন। নির্বাচিত হন মানুষের আকণ্ঠ ভালোবাসা নিয়ে। শুধু তাই নয়, প্রথমবারের মতো কাউন্সিলর হিসেবে নির্বাচিত হয়ে প্যানল মেয়রও হয়েছন। বর্তমানে তিনি নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের প্যানেল মেয়র-২।

স্থানীয়রা বলছেন, কাউন্সিলর মতিউর রহমান মতি সাধারণ মানুষের কাছাকাছি রয়েছেন। সুখে দুঃখে দলমত নির্বিশেষে সবার সাথেই তিনি মিশতে পারেন হাসিমুখে। বিভিন্ন সময় দরিদ্র কোনো মানুষ তার কাছে এসে খালি হাতে ফেরেনি। নিজ সমর্থ অনুযায়ি তিনি যতটা সম্ভব সাহায্যের হাত বাড়িয়েছেন। এখনও তার সহযোগিতার হাত প্রসারিত।

তবে, একই দলের তার প্রতিপক্ষ একটি গ্রুপ নানা ভাবেই মতিকে বিতর্কিত করার চেষ্টা নিয়মিতই অব্যাহত রেখেছেন। নানা ভাবেই নাজেহাল করার চেষ্টা করেন ওই পক্ষটি।

স্থানীয়দের মতে, স্থানীয় ওই পক্ষটি সরাসরিই চোরাই তেল ব্যবসার সাথে জড়িত। এসব করে বিপুল অর্থবিত্তের মালিক তারা। নিজেদের অবৈধ সা¤্রাজ্য ধরে রাখতে মরিয়া ওই পক্ষটি নানা ভাবে নানা কুটকৌশলে বেকায়দায় ফেলার চেষ্টা করেন মতিকে। তবে, অদম্য মতি এসব কিছুই পাশ কাটিয়ে নিজের কাজ নিজেই করে যাচ্ছেন আপন মনে।

সন্ধ্যার পর আদমজী সোনা মিয়া বাজারের চালের আড়তে বসেন কাউন্সিলর মতি। এই ব্যবসাটি তিনি নিজেই করেন। আশপাশে আরও কয়েকটি এমন আড়ৎ রয়েছে। কথা বলতে যাওয়া হয় তার কাছে। এই প্রতিবেদকের সাথে কথা বলেন কাউন্সিলর।

মতিউর রহমান মতি বলেন, শামীম ভাইয়ের রাজনীতি করি শুরু থেকেই। তাকে ভালোবাসি। তার নেতৃত্ব ভালো লাগে। দক্ষ একজন সংগঠক তিনি। তার নেতৃত্বের যেই দক্ষতা তা আমাকে বরাবরই মুগ্ধ করে। আমি তার কর্মী হতে পেরে নিজেকে গর্বিত মনে করি। জাতির জনকের আদর্শ শামীম ভাইয়ের মধ্যে বিদ্ধমান। আমি জাতির জনকের আদর্শ বুকে ধারণ করে শামীম ওসমান ভাইয়ের পিছনে থেকে তার একজন কর্মী হিসেবে আজীবন কাজ করে যেতে চাই।

তিনি বলেন, কর্ম গুণেই মানুষ ফল ভোগ করে। আমার কর্ম যদি ভালো হয় তাহলে অবশ্যই আমি ফলটা ভালোই পাবো। রাজনীতিতে আসার পর ঘরে বাইরে অনেকেই অনেক সময় ষড়যন্ত্র করেছে। সেসব ষড়যন্ত্র সফল হয়নি। হয়তো সাময়িক সমস্যা সৃষ্টি করেছে। কিন্তু দমাতে পারেনি। কেননা, আমি সাধারণ মানুষদের সাথে নিয়ে রাজনীতি করি। চেষ্টা করি সবাইকে নিয়ে কাজ করতে। যারা ষড়যন্ত্র করছে আমি চাই তারাও আসুক। এক সাথে মিলেমিশে সুন্দর একটি সমাজ গড়ে তুলি। সম্বিলিত উদ্যোগেই সুন্দর সমাজ গড়া যায়।

১১ মে, ২০১৯/এসপি/এনটি

উপরে