NarayanganjToday

শিরোনাম

আজহারীকে ‘ফেরাউনের ভাতিজা’ বলায় তামিম বিল্লাহর বিরুদ্ধে ফুঁসছে মানুষ


আজহারীকে ‘ফেরাউনের ভাতিজা’ বলায় তামিম বিল্লাহর বিরুদ্ধে ফুঁসছে মানুষ

ইসলামী বক্তা মাওলানা মিজানুর রহমান আজহারীকে ‘ফেরাউনের ভাতিজা’ আখ্যায়িত করে বন্দরে তাকে নিষেধাজ্ঞা জারির আবেদন জানিয়ে মানববন্ধন ও ঝাড়– মিছিল করায় ব্যাপক তোলপাড় শুরু হয়েছে।

মাওলানা তামিম বিল্লাহর নেতৃত্বে মঙ্গলবার (১৭ ডিসেম্বর) সকালে বন্দরবাসীর ব্যানারে ওই মিছিল ও মানববন্ধন হয়েছে। ১৮ ডিসেম্বর বুধবার বন্দরের মুছাপুরায় একটি ওয়াজ মাহফিলে বয়ান করার কথা রয়েছে মিজানুর রহমান আজহারীর।

এদিকে বন্দরে তার আগমন ঠেকাতে সোচ্চার হয়ে উঠেছেন তামিম বিল্লাহর নেতৃত্বে একদল মানুষ। এই মাসুম বিল্লাহও ইতোমধ্যে বেশ বিতর্কিত নারী কেলেঙ্কারির ঘটনায়। ফলে, তার মতো কোনো বিতর্কিত একজন ব্যক্তির নেতৃত্বে এমন মিছিল ও মানববন্ধন হওয়া তীব্র প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেছেন অনেকে। এমনকি এ ঘটনার পর থেকে এক শ্রেণীর সাধারণ মানুষের মধ্যেও ব্যাপক ক্ষোভ বিরাজ করছে। এ নিয়ে শুরু হয়ে পক্ষে বিপক্ষে সমালোচনা।

এর আগে চলতি বছরের ৫ ডিসেম্বর আহলে হাদিস পন্থী, জামাতি মাওলানা মিজানুর রহমান আজহারী লাকসাম উপজেলার মুদাফফরগঞ্জ বাজারের দক্ষিণে চিকুনিয়ার ঐতিহাসিক বালুর মাঠের ওয়াজ মাহফিলে উপস্থিত থাকার কথা থাকলেও সে তা করতে পারে নি। এদিন বাদ যোহর এ মাহফিল আয়োজন করা হলেও তৌহিদী মুসলিম জনতার কারনে প্রশাসনের বাধায় বক্তব্য রাখতে পারেনি কথিত বিতর্কিত মাওলানা মিজানুর রহমান আজহারী। এদিকে সারাদেশের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও তাকে নিয়ে শুরু হয়েছে নানান আলোচনা সমালোচনা।

এদিকে মিজানুর রহমান আজাহারীর বিরুদ্ধে ঝাড়– মিছিল করায় মাসুম বিল্লাহকে নিয়েও শুরু হয়েছে সমালোচনা। সামনে চলে আসছে তার নারী কেলেঙ্কারির বিষয়টি। সূত্র বলছে, গেল বছরের ১৮ এপ্রিল সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তামিম বিল্লাহর সাথে এক নারীর ভিডিও ভাইরাল হয়। এরপর থেকেই এ নিয়ে তীব্র সমালোচনা ছড়িয়ে পড়ে চারিদিকে। অনেকের কাছে তিনি একজন বিতর্কিত ব্যক্তি হিসেবেই পরিচিত।

 

উপরে