NarayanganjToday

শিরোনাম

দ্বিধাবিভক্ত আ.লীগে সুবিধাজনক অবস্থানে বিএনপি!


দ্বিধাবিভক্ত আ.লীগে সুবিধাজনক অবস্থানে বিএনপি!

আইনজীবী সমিতির নির্বাচনকে ঘিরে বিএনপি একাট্টা থাকলেও দ্বিধাবিভক্ত আওয়ামী লীগ পন্থী আইনজীবীরা। ফলে এবারের নির্বাচনে এই ধারা অব্যাহত থাকলে নির্বাচনী ফলাফলের দিক থেকে বিএনপির পাল্লাই ভারি বলে মনে করছেন অনেকে।

তবে, এর আগে আওয়ামী লীগের একাংশ ও বিএনপি পন্থী আইনজীবীরা নির্বাচন কমিশন পরিবতর্নের যে দাবি নিয়ে মাঠে নেমেছেন, এ দাবি যদি তারা আদায় করতে না পারেন এবং শেষ পর্যন্ত প্যানেল তিনটা না হয়ে দুটিই যদি হয় তাহলে আবারও আওয়ামী লীগ পন্থী আইনজীবী প্যানেলরই নেতৃত্বে আসার সম্ভাবনা বেশি।

সূত্র বলছে, নারায়ণগঞ্জ আইনজীবী সমিতির নির্বাচনে আওয়ামী লীগ ও বিএনপি পন্থী আইনজীবী প্যানেলের বাইরেও ‘সম্মিলিত আইনজীবী পরিষদ’ নামে আরও একটি প্যানেল ঘোষণার কথা জানিয়েছিলো আওয়ামী লীগ পন্থী আইনজীবীদের একাংশের নেতা অ্যাড. আনিসুর রহমান দিপু এবং গণতান্ত্রিক আইনজীবী পরিষদের সিনিয়র সহসভাপতি মাহবুবুর রহমান মাসুম।

এখানে সম্মিলিত আইনজীবী পরিষদ যদি প্যানেল ঘোষণা করে এবং নির্বাচনে থাকে তাহলে এই জোটে সাধারণ, বাম ঘরোয়ানা এবং আওয়ামী লীগের একাংশের আইনজীবীদের সমন্বয়েই প্যানেল গঠন হবে। ফলে, অনেকেই মনে করছেন এই প্যানেলই শক্তিশালী হবে যদি যোগ্য প্রার্থী ঘোষণা করতে পারে জোট নেতারা।

অপরদিকে শেষতক যদি তিন প্যানেল না হয়ে আওয়ামী লীগের যে একাংশ বিদ্রোহ করছে তারা যদি মূল প্যানেলের সাথে মিশে যায় তাহলে বেকায়দায় পড়ে যাবে বিএনপি পন্থীরা। যার কারণে, এবারের নির্বাচনে পূর্ণ প্যানেল তিনটি হলে এর সুবিধা নিতে পারবে বিএনপি এবং অসুবিধায় পড়ে যেতে পারে আওয়ামী লীগ। তাই তারাও মনেপ্রাণে চাইছে প্যানেল তিনটিই হোক এবং আওয়ামী লীগ পন্থী আইনজীবীদের মধ্যকার দ্বন্দ্ব আরও বেশি বেগবান হোক।

এ প্রসঙ্গে গণতান্ত্রিক আইনজীবী পরিষদের সিনিয়র সহসভাপতি অ্যাড. মাহবুবুর রহমান মাসুম বলেন, আমরা অবশ্যই প্যানেল ঘোষণা করবো। নির্বাচনে আমাদের প্যানেল থাকবে। তবে, প্যানেল ঘোষণার আগে আমরা যে আন্দোলন করছি তা আদায় করা হবে। এরপরই ঘোষণা করা হবে প্যানেল।

তিনি আরও বলেন, জরুরী তলবী সভা আহ্বান করে যে ৩শ ১৭ জনের স্বাক্ষর সম্বলিত দরখাস্ত দেওয়া হয়েছে সেটি শুধু বিএনপি পন্থীদের স্বাক্ষর নয়, আমাদের সাধারণ আইনজীবীদেরও স্বাক্ষর রয়েছে। যেহেতু নির্বাচন কমিশন পরিবতর্নের দাবি আমাদের এক, তাই একসাথেই ওই দরখাস্ত করা হয়েছে।

আওয়ামী লীগ পন্থী আইনজীবীদের একাংশের নেতা ও সাবেক চার বারের সভাপতি অ্যাড. আনিসুর রহমান দিপুও সম্মিলিত পরিষদ নামে প্যানেল ঘোষণার প্রতি জোর দিয়ে বলেন, আমরা প্যানেল ঘোষণা করবো। তার আগে দাবি আদায়ের আন্দোলন চলবে।

তিনি বলেন, আমরা পাঁচজন নির্বাচন কমিশনের সাথে দেখা করেছি। তাদেরকে বলেছি আপনারা পদত্যাগ করুন। সুষ্ঠু সুন্দর নির্বাচনের পরিবেশ সৃষ্টি করতে সহযোগিতা করুন। এখন তারা কী করেন এবং আমরা কী করবো সেটি মঙ্গলবার বুঝা যাবে। এদিন আমরা পরিস্থিতির উপর পরবর্তী করণীয় নির্ধারণ করবো।

১৩ জানুয়ারি, ২০২০/এসপি/এনটি

উপরে